kalerkantho


বেঙ্গলের ‘ফোক ফেস্ট’ মিরপুর স্টেডিয়ামে!

১৪ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



বেঙ্গলের ‘ফোক ফেস্ট’ মিরপুর স্টেডিয়ামে!

ক্রীড়া প্রতিবেদক : পৃথিবীর নামি অনেক স্টেডিয়ামেও কনসার্ট হয়। তবে সেটি অফ সিজনে।

কিন্তু আগামী মাসে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে যে সংগীতায়োজনের জোর প্রস্তুতি চলছে, সেটি ক্রিকেটের ভর মৌসুমেই। জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কা দলের আসন্ন সফর নিয়ে ব্যস্ততার মধ্যেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) অন্তত ৯ দিনের জন্য ছেড়ে দিতে হচ্ছে স্টেডিয়াম। এই ছেড়ে দেওয়াটা বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের লোকগীতি উৎসব অর্থাৎ ‘ফোক ফেস্ট’-এর জন্য।

জানা গেছে, মিরপুর স্টেডিয়ামে বেঙ্গলের এই আয়োজনটি পাঁচ দিনব্যাপী। ২৬ ডিসেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ৩০ ডিসেম্বর। কিন্তু এর আগে মঞ্চ সজ্জা এবং অন্যান্য ব্যবস্থাপনার জন্যও কয়েকটি দিন লাগবে। সে জন্যই ২২ ডিসেম্বর থেকে এই স্টেডিয়াম বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে বিসিবির কাছে। শুরু হয়ে গেছে বরাদ্দ দেওয়ার প্রক্রিয়াও। অবশ্য বরাদ্দ দেওয়ার আগে মাঠের কোনো ক্ষতি হবে না, এই মর্মে নিশ্চয়তা চেয়ে নাকি পাওয়াও গেছে।

যদিও এ বিষয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী খুলে কিছুই বলতে চাইলেন না। প্রথমে ‘এই বিষয়ে আমি কিছু জানি না’ বললেও পরে তিনি বলেছেন, ‘এখনো এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো যোগাযোগ হয়নি। ’ 

এটা ঠিক যে বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ হয়নি বিসিবির, হয়েছে অন্য মাধ্যমে। ফোক ফেস্টের জন্য স্টেডিয়াম বরাদ্দ দেওয়া নিয়ে তাঁদের যোগাযোগের পুরোটাই হচ্ছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে। ভুল পড়েননি, অর্থ মন্ত্রণালয়ই। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, লোকগীতি উৎসব আয়োজনে ৯ দিনের জন্য স্টেডিয়াম বরাদ্দ চেয়ে বিসিবিতে পাঠানো চাহিদাপত্রটি দিয়েছে খোদ অর্থ মন্ত্রণালয়। শুধু তাই নয়, সেটি আবার অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত স্বাক্ষরিত। ক্রিকেটের ভর মৌসুমে এই আয়োজনে বিসিবির বাদ সাধতে না পারার এটিই মূল কারণ বলে জানিয়েছে একটি সূত্র। হতে পারে বিসিবি প্রধান নির্বাহীর বিষয়টি চেপে যাওয়ার কারণও এটিই। তিনি সরাসরি কিছু না বললেও ভেতরে ভেতরে লোকগীতি উৎসবের জন্য স্টেডিয়াম বরাদ্দের প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে।


মন্তব্য