kalerkantho


আয়োজকদের অসহযোগিতার অভিযোগ বাংলাদেশের

১৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



কলম্বো থেকে প্রতিনিধি : কাল সকালে নিদাহাস ট্রফির সংবাদ সংগ্রহে শ্রীলঙ্কায় আসা বিদেশি সাংবাদিকদের শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডে চায়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন এসএলসি প্রেসিডেন্ট থিরাঙ্গা সুমাথিপালা। সেখানেই বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার পারস্পরিক সৌহার্দ্য, উষ্ণ সম্পর্ক ও আঞ্চলিক সহযোগিতা নিয়ে অনেক কথাই বলেছেন তিনি। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, কাল দুপুরে অনুশীলনে এসে মুশফিক-মাহমুদ উল্লাহরা ফিরে গেছেন আয়োজকদের অসহযোগিতার কারণে।

বিকেল ৩টা থেকে অনুশীলন সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে। সেখানে গিয়ে দেখা যায়, মূল মাঠে সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাবের সঙ্গে মুরস ক্রিকেট ক্লাবের খেলা চলছে। বাংলাদেশ দলকে অনুশীলনের জন্য বরাদ্দ দেওয়া ছিল মাঠের পাশের নেটে। হালকা স্ট্রেচিংয়ের পর ছোট জায়গা আর মাঠ ভেজা থাকায় অনুশীলন না করার সিদ্ধান্তই নেয় টিম ম্যানেজমেন্ট। দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ জানান, ‘দুঃখের কথা, উইকেট আসলে প্রস্তুত না। অনুশীলন সুবিধাও প্রস্তুত না। তারপর একটা ম্যাচও হচ্ছে মাঠে। ক্রিকেট অপারেশনস বিভাগের সঙ্গে কথা বললাম, বলল তিনটা অনুশীলন উইকেট দেবে। হয়তো মাঠ দেবে না। ফিল্ডিং করার জায়গা নেই, উইকেট প্রস্তুত না এ কারণে আমরা নিরাপদ মনে করছি না এখানে অনুশীলন করা। কারণ এক দিন পরই আমাদের গুরুত্বপূর্ণ খেলা। কেউ চোট পাক সেটা আমরা চাই না আসলে।’ বাংলাদেশকে অনুশীলনের সুযোগ-সুবিধা না দেওয়া নিয়ে অভিযোগেরও উপায় নেই খালেদ মাহমুদের, “অনুশীলন করতে পারলাম না, একটু অখুশি তো অবশ্যই। পরে আমরা চেয়েছিলাম পি সারা ওভালে যেতে। কিন্তু বৃষ্টি হচ্ছে, তাই সেখানেও উইকেট ঢাকা। উপায় না দেখে ফিরে যাচ্ছি। অনেক আগেই চুক্তি করা ছিল, তাতে আজকে অনুশীলন ছিল এসএসসিতে। এটা বলার কিছু নেই, চুক্তিতেই এটা ছিল।’


মন্তব্য