kalerkantho


রুশ ডিফেন্সের দুর্বলতা কাজে লাগাতে চাইবে সৌদিরা

১৪ জুন, ২০১৮ ০০:০০



র‌্যাংকিংয়ে সবচেয়ে নিচের দুটি দলের ম্যাচ দিয়ে উদ্বোধন হচ্ছে রাশিয়া বিশ্বকাপের। স্বাগতিক হিসেবে একমাত্র দক্ষিণ আফ্রিকাই এর আগে গ্রুপ পর্ব পেরোতে পারেনি। এবার রাশিয়াকে নিয়ে সেই শঙ্কা। আসলেই কী হতে যাচ্ছে সৌদি আরবের বিপক্ষে এই ম্যাচেই তার একটা আভাস পাওয়া যাবে। 

রাশিয়া ৫-৪-১ ফরমেশনে খেলছে। গত কয়েকটা ম্যাচে সেভাবেই ওদের দেখা গেছে। তবে গ্রুপের তিনটা দল তো তিন রকম শক্তির, সে ক্ষেত্রে ম্যাচ অনুযায়ী কৌশলে বদল আসতে পারে। প্রায় সমশক্তির সৌদি আরবের বিপক্ষে আজ পূর্ণ পয়েন্টের জন্যই ঝাঁপাবে ওরা। তাতে মনে হয় না তারা ফোর ব্যাকে যাবে। ফরমেশনটা ৫-৩-২ হতে পারে বড়জোর আরেকজন স্ট্রাইকার যোগ করে। লোন স্ট্রাইকার ফিওদর স্মোলভের সঙ্গে অ্যালেক্সি মিরানচুক সুযোগ পেতে পারেন। আক্রমণাত্মক হতেই উইং ব্যাকের জায়গায় হয়তো উইং মিডফিল্ডার খেলাবেন স্তানিসলাভ চেরচেসভ। মিক্সআপও হতে পারে। একদিকে ঝিরকোফ অন্যদিকে আক্রমণাত্মক মিডফিল্ডার সমেদোভ বা স্মলনিকোভ। গোলপোস্টের নিচে আকিনফেভ ও ওপরে স্মোলভই রাশিয়ার ভরসা। অন্য পজেশনগুলোতে কোচ স্তানিসলাভ চেরচেসভ যথেষ্ট পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছেন। 

রাশিয়ার দুর্বলতা তো আছেই। তার মধ্যে ডিফেন্সটাই ভোগাবে বেশি। অভিজ্ঞ দুই ভাই ছিলেন, ইউরোর পর পর যাঁরা অবসরে গেছেন। এখনকার স্লো ডিফেন্সের সুযোগটা নেবে সৌদি আরব। কারণ তারা ট্রানজিশনে খুব দ্রুতগতির, বিশেষ করে উইং দিয়ে আল দোউসারি, আল-শেহরি, আল মুয়াল্লাদরা বিপদ হবেন স্বাগতিকদের। রাশিয়া যেহেতু হাই প্রেস করবে সৌদি আরবের খেলার মূল ধরনই হবে সিটব্যাক করে কাউন্টার অ্যাটাক খেলা উইং দিয়ে। স্লো বিল্ডআপও হয়তো থাকবে। জার্মানির বিপক্ষে শেষ ম্যাচটা ওরা বেশ ভালো খেলেছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে হাই প্রেসিংও করেছে। এই দলটার ভিতটা গড়ে দিয়েছে বার্ত ফন মারউইক। ওর স্টাইলই ছিল ওই ডিফেন্স ও কাউন্টার অ্যাটাক। কেউ যেন সহজে গোল করতে না পারে। এই ম্যাচে হুয়ান আন্তোনিও পিজ্জি ৪-২-৩-১-এ খেলাবে বা ৪-১-৪-১। ৪-১-৪-১ হলে ওতায়েভ এবং আল জসিম দুদিকে, জসিম বেশ ভালো খেলেছেন জার্মানির বিপক্ষে। ৪-২-৩-১ হলে অ্যাটাকিং মিডফিল্ডের একদিকে আল মুয়ালালাব, আরেক দিকে আল দোওসারি। মাঝখানে আল-শেহরি। মুয়াল্লাদ জার্মান ম্যাচে অত ভালো  খেলেননি। সে ক্ষেত্রে শেহরিকে ডান দিকে খেলানো হয় কি না, দেখার আছে।

ওদের দুর্বলতাও ডিফেন্সে। অধিনায়ক ওসামা হাসাউয়ির বয়স ৩৪ হয়ে গেছে, তিনি কতটা সামাল দিতে পারবেন  সেটা একটা প্রশ্ন। বারবার কোচ বদলও সৌদি আরবের খেলার ক্ষতি করেছে। পিজ্জি বিল্ডআপ পছন্দ করেন। সৌদি আরবের খেলায়ও আগে থেকেই এই ঘরানাটা আছে। ম্যাচ পরিস্থিতি অনুযায়ী তারা আসলে কৌশল বদলাবে। মিডফিল্ডে বল উইন করলে নিশ্চয়ই পজেশনে যেতে চাইবে, অন্য সময় ডিফেন্স জমাট করে রাখা।

জাতীয় দলের সাবেক কোচ

 


মন্তব্য