kalerkantho


ভ্রমণ : বাইসাইকেলেই ১০০ দেশ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ আগস্ট, ২০১৭ ১৫:১৩



ভ্রমণ : বাইসাইকেলেই ১০০ দেশ!

বাইসাইকেলে চেপে বিশ্ব চষে বেড়ালেন লার্স বেংটসন

সম্প্রতি অ্যাঙ্গোলার ভূ-খণ্ড অতিক্রম করেছেন লার্স বেংটসন। সুইডেন থেকে এসেছেন তিনি। অ্যাঙ্গোলার মাধ্যমে ১০০তম দেশটি ভ্রমণ শেষ করলেন এই পর্যটক। তাও স্রেফ একটি বাইসাইকেলে চড়ে। এই মানুষটি সহজেই বিশ্বের আনাচে-কাচানের যেকোনো পর্যটকের জন্য অনুপ্রেরণাদায়ক ব্যক্তি হয়ে উঠতে পারেন। আজ তাই তার গল্পের সংক্ষিপ্ত অংশটা জেনে নেওয়া যাক। যে মানুষগুলো ভ্রমণের জন্য পাগলপ্রায় হয়ে থাকেন, কিন্তু নানা সমস্যার কথা ভেবে নিজেকে সামলে নেন, তাদের বুকে অসম সাহস জোগাতে এক লার্সই যথেষ্ট। 

২০০৪ সাল থেকে এ বছরের যতটুকু সময় গেছে, তার মধ্যে ১ লাখ ৫ হাজার কিলোমিটারের বেশি অতিক্রম করেছেন তিনি বাইসাইকেলে। এখন তার পরিকল্পনা রয়েছে যে, কিছু সময়ের জন্য বিশ্রাম দেবেন বাইসাইকেলটিকে। পরিবর্তে ইন্দোনেশিয়ার দ্বীপগুলো ঘুরবেন পায়ে হেঁটে। 

তার ভ্রমণ যেন এক মহাকাব্য। একে তুলে ধরা কষ্টসাধ্য বিষয়। তবে এই অসাধারণ ভ্রমণকাহিনীর কিছু বিস্ময়কর তথ্য জেনে নিন। গোটা ভ্রমণ তিনি বাইসাইকেলেই সেরেছেন। তবে কিছু স্থানে এটাকে নেওয়া সম্ভব হয়নি। তখন পায়ে হেঁটেই কাজ সেরেছেন তিনি। দেখে নিন তার দুঃসাহসীক অভিযানের কিছু তথ্য। 

১. বাইসাইকেলে চেয়ে একটানা পাড়ি দেওয়া দীর্ঘতম পথ ২৫৫ কিলোমিটার, অস্ট্রেলিয়া। 

২. এটাকে নিয়ে সর্বোচ্চ ৫০৯০ মিটার উঁচুতে উঠেছেন পেরুতে। 

৩. আর্জেন্টিনার বোনেতে চিকোতে ৬৭৫৯ মিটার উঁচুতে উঠেছেন, তবে সাইকেল ছাড়া। 

৪. চীনের আলতুন শান অঞ্চলে চলার পথে টানা ৩৯ দিন তিনি কোনো গ্রামের দেখা পাননি। 

৫. চীনে সবচেয়ে বেশি পরিমাণ খাবার বাইসাইকেলে নিয়েছেন তিনি। ওজন ছিল ৩৪ কেজি। 

৬. আর্জেন্টিনায় ১৬ লিটার পর্যন্ত পানি বহন করতে হয় বাইসাইকেলে। 

৭. ইরান আর পাকিস্তানের সীমান্ত ছিল সবচেয়ে গরম স্থান, তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপর ছিল। 

৮. পশ্চিম তুরস্কে একেবারে শীতের মাঝামাঝিতে, তাপমাত্রা ছিল মাইনাস ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

৯. সবচেয়ে কঠিন পরিবেশের মুখোমুখি হয়েছিলেন ইথিওপিয়ায়। 

১০. লাটভিয়া থেকে সেনেগাল পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১১০৫০ কিলোমিটার গিয়েছিলেন যখন সাইকেলের চাকা পাঙ্কচার হয়ে যায়নি। 

১১. তাজাকিস্তানের বারতাং ভ্যালি দিয়েছে সবচেয়ে বাজে নদী পারাপারের অভিজ্ঞতা। 

১২. তানজানিয়ায় সবচেয়ে ভয়ংকর মাছির আক্রমণের শিকার হয়েছিলেন। 

১৩. সবচেয়ে সুন্দর দেশের কথা বলা কঠিন। তবে সম্ভবত নামিবিয়া বলেই মনে করেন তিনি। 

১৪. জর্জিয়ার রাস্তায় সব বাজে গাড়িচালকদের দেখা মিলেছে তার। 

১৫. গোটা একটা দিন সাইকেল চালানোর পর চাকা সবচেয়ে ভালো অবস্থায় ছিল প্যারাগুয়ের গ্রান চাকোর রাস্তায়। 
সূত্র : ইন্টারনেট 


মন্তব্য