kalerkantho


একাকী ভ্রমণে সঙ্গী যখন বৃষ্টি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ আগস্ট, ২০১৭ ১৮:৫৭



একাকী ভ্রমণে সঙ্গী যখন বৃষ্টি

দল বেঁধে ভ্রমণের মজাই আলাদা। এটা নতুন করে বলার কিছু নেই। তবে একাকী ভ্রমন করলে ভিন্ন অভিজ্ঞতার দেখা মিলবে। গোটা সময়টাকে একান্ত নিজের করে উপভোগ করতে পারবেন। এখানে একাকী ভ্রমনের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে কিছু বলা হচ্ছে না। এ ধরনের ভ্রমণ সব সময়ই আনন্দের। তবে আপনাকে নাস্তানাবুদ করতে পারে বৃষ্টি। যেখানেই যান না কেন, যখন তখন বৃষ্টির সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায়। তা ছাড়া এখন তো বৃষ্টির কোনো ঠিক ঠিকানাই নেই। ভ্রমণে গিয়ে বৃষ্টিতে ভেজা এককথা। আর বাধ্য হয়ে ভেজা আরেক কথা।

তাই যেখানেই যান না কেন, বৃষ্টি থেকে বাঁচার ব্যবস্থা রাখতে হবে। কাঁধে যদি ব্যাগ থাকে, তাহলে জরুরি জিনিসগুলো ভিজে নষ্টও হয়ে যেতে পারে। অভিজ্ঞজনরা দিচ্ছেন পরামর্শ।  

১. পানিপ্রতিরোধী হয়ে যান 
বৃষ্টি আসুক বা নাই আসুক, বেরিয়ে যেতে চাইলে নিজেকে পানিপ্রতিরোধী করে ফেলার ব্যবস্থা নেবেন। প্রথমেই আপনার ব্যাকপ্যাকটি ওয়াটারপ্রুফ দেখে কিনুন। ওটাতে একটা রেইন কোট আর একটা ছাতাও রাখবেন। এতে বৃষ্টির জন্য বেড়াতে গিয়ে হোটেলে বসে থাকতে হবে না। নির্বিঘ্নে বাইরে বেরিয়ে যেতে পারবেন।  

২. চেইন দেওয়া পাউচ এবং প্লাস্টিক ব্যাগ 
বৃষ্টিপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে ভ্রমণে যেতে চাইলে মোবাইল বা ছোটখাটো জিনিসপত্র নিরাপদে রাখার জন্য এমন পাউচ কিনুন যেগুলোতে চেইন লাগানো রয়েছে। প্লাস্টিক ব্যাগ সঙ্গে রাখুন। এসব জিনিস আপনার দামি গেজেটগুলোকে রক্ষা করবে। বেড়াতে গেলে তো ক্যামেরাসহ বেশ কিছু দামি প্রযুক্তিপণ্য থাকতেই পারে। এগুলো বৃষ্টিতে নষ্ট হলে ভ্রমণটাই বৃথা যাবে।  

৩. স্ট্রিট ফুড এড়িয়ে যান 
অনেক জায়গাতেই খাবারের জন্য স্ট্রিট ফুডের দোকানগুলোই মূল আকর্ষণ হয়ে ওঠে। তবে স্বাস্থ্যকর খাবারের বিষয় নিশ্চিত করতে হবে। তাই বৃষ্টির মৌসুমে এগুলো এড়িয়ে চলাই ভালো। কারণ এমনিতেই বৃষ্টিতে নানা রোগ ছড়ানোর ভয় থাকে। এর চেয়ে বরং ফল, স্ন্যাক্সস এবং অন্যান্য ভালো খাবার বেছে নিন।  

৪. ফার্স্ট এইড বক্স 
গোটা বাক্সটা সঙ্গে নিতে হবে না। বরং ব্যাগের ছোট একটি পকেটকেই ফার্স্ট এইড বক্স বানিয়ে ফেলুন। ব্যথানাশক, জীবাণুনাশক, বমি হলে এবং কেটে গেলে দেওয়ার জন্য কিছু ওষুধ রেখে দিন। নিজে বুঝে আরো কিছু দারকারি ওষুধ রাখতে পারেন।  

৫. যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন না হতে চাইলে...
যেখানে যাবেন সেখানে বিদ্যুৎব্যবস্থা কেমন জেনে প্রস্তুতি নিলে ভালো হবে। হঠাৎ করেই মোবাইল বা টর্চের আলো ফুরিয়ে গেলে বাড়তি ব্যবস্থা সঙ্গে নেবেন। আলাদাভাবে পাওয়ার ব্যাঙ্ক বা ব্যাটারি নিয়ে নিন। বিশেষ কারণে বা যানজটে পড়েও আপনার যাবতীয় চার্জ ফুরিয়ে যেতে পারে।  

৬. কীট-পতঙ্গ তাড়াতে 
ভেজা পরিবেশ নানা ধরতের কীট-পতঙ্গ বয়ে আনে। স্থান বুঝে তা মারাত্মক হতে পারে। তাই বিশেষ করে মশা-মাছি কিংবা সাপ তাড়ানোর জন্য সংশ্লিষ্ট কাজে ব্যবহার্য ক্রিম বা স্প্রে ইত্যাদি নিয়ে নিন। এতে করে প্রাণঘাতী যেকোনো রোগের ঝুঁকি থেকেও রক্ষা পাবেন।  

৭. সাহায্য চান 
যদি বিপদে পড়েই যান তো মানুষের কাছে সহায়তা চাইতে পারেন। আহত হলে মানুষকে জিজ্ঞাসা করে হাসপাতালে যেতে হবে। কিংবা কোনো চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন। আচমকা কোনো বিপদকে কখনই অবহেলা করবেন না। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস 


মন্তব্য