kalerkantho


যদি ঈদে ভ্রমণ করেন...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ আগস্ট, ২০১৭ ২২:৩২



যদি ঈদে ভ্রমণ করেন...

ঈদের ছুটিতে অনেকেই এখানে সেখানে ঘুরতে যান। কেউ বা দেশের ভেতরেই।

আবার কেউ বা দেশের বাইরে ছুট লাগাবেন। একা কিংবা পরিবার নিয়েই সবাই ছুট লাগান এখানে সেখানে। ঈদে ভ্রমণ বেশ উপভোগ্য হয়ে ওঠে। রাস্তায় যেমন ভিড় থাকে না, তেমনই উৎসবমুখর মন দিয়ে ঘোরাফেরা করা সম্ভব। বিশেষ করে শিশুদের তো আনন্দের সীমাই থাকে না। তবে কিছু সাবধানতা অবশ্যই নিয়ে রাখতে হবে। নয়তো গোটা আনন্দই মাটি হয়ে যাবে। এর জন্য নিন কিছু পরামর্শ।  

১. আগেভাগেই যদি ভ্রমণের পরিকল্পনা নিতে পারেন, তবে ১৫-২০ দিন আগেই বাচ্চার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়ে নিন।

ভ্যাক্সিনের দেওয়ার দিন-তারিখ থাকলে তা নিয়ে নিন। ওর বিশেষ কোনো অ্যালার্জি থাকলে তা মাথায় রাখুন। সাধারণত শিশুদের নতুন স্থানের খাবার নিয়ে সমস্যা হতে পারে। এ ছাড়াও জ্বর-সর্দির জন্য ওষুধপত্র নিয়ে রাখতে হবে।  

২. ছোটখাটো মেডিক্যাল কিট সঙ্গে রাখুন। যেকোনো ধরনের আঘাত পেলে বা ক্ষত হলে জীবাণুনাশক সঙ্গে নেবেন। এটা মেডিক্যাল কিটের মধ্যেই থাকার কথা। এ ছাড়াও যে ওষুধগুলো সব সময় প্রয়োজন পড়ে সেগুলো সঙ্গে নিতে হবে।  

৩. হোটেল বাছাইয়ের ক্ষেত্রে সাবধান থাকুন। সেখানে কক্ষ ভাড়া করার আগে অবশ্যই ওই হোটেলের অবস্থা সম্পর্কে জেনে নেবেন। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন হোটেল ছাড়া উঠবেন না।  

৪. সঙ্গে শিশু থাকলে ব্যাগের ভার যতটা পারা যায় কমিয়ে নেবেন। অল্প সময়ের মধ্যে অনেকগুলো স্থান ঘুরে দেখার চেষ্টা করবেন না। এতে হিতে বিপরীত ঘটবে। শরীরের ওপর চাপ পড়বে। ক্লান্তি ভর করবে। সুন্দর জায়গাগুলোতে ঘুরেও ভালো লাগবে না।  

৫. পর্যাপ্ত পানি খাবেন। দেহ পানিশূন্য হলেই অসুস্থ হয়ে পড়বেন। তাই সবার জন্য আলাদা করে পানি ব্যাগে ভরে রাখুন। বেশি অস্থির হয়ে ঘোরাঘুরি করবেন না।  

৬. যদি এমন হয় যে, হঠাৎ করেই ভ্রমণের পরিকল্পনা ঠিক হয়েছে, তবুও একবার হলেও বিশেষজ্ঞের কাছে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়ে আসুন।  

৭. ভ্রমণে গিয়েছেন বলে যে ঘুমকে ভুলে যাবেন তা কিন্তু নয়। ঘুম না হলে অসুস্থ হতে সময় লাগবে না। তাই সারাদিনের ভ্রমণ শেষে অবশ্যই ঘুমিয়ে পড়ুন। গভীর ঘুম জরুরি।  
সূত্র : এমিরেটস 


মন্তব্য