kalerkantho


ভ্রমণ : খুলে দেওয়া হয়েছে টাইটানিকের আঁতুড় ঘর!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৭:২৭



ভ্রমণ : খুলে দেওয়া হয়েছে টাইটানিকের আঁতুড় ঘর!

হোটেলের ভেতরের একটি অংশ

একটানা দুই বছরের শ্রম আর ২৮ মিলিয়ন ইউরো ঢালার পর দ্বার খুলেছে হারল্যান্ড অ্যান্ড উলফ ড্রইং অফিসেস এর ঐতিহাসিক ভবন। সেই সঙ্গে ইতিহাসের নতুন অধ্যায় খুলেছে চার তারকা টাইটানিক হোটেল বেলফাস্ট।

এটা সেই ভবন যেখানে বসে এক সময় প্রকৌশলী আর জাহাজ নির্মাতারা ১৭ শত জাহাজের নকশা করেছেন। এখানেই অঙ্কিত হয়েছে সেই বিখ্যাত টাইটানিক জাহাজের নকশা। ইতিহাসগুলোকে সংরক্ষণ এবং একই সঙ্গে প্রদর্শনের জন্য ভবনটিকে হোটেলে পরিণত করা হয়েছে। এখানে আরো আছে লাউঞ্জ, বলরুম আর প্রদর্শনীর স্থান।  

ব্রিটেনের কুইন্স রোডে গেলেই হোটেলটি দেখতে পাবেন। পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় স্থান হয়ে উঠেছে এটি। এখানেই আছে সেই বিখ্যাত টেলিফোন এক্সচেঞ্জ। বরফখণ্ডের সঙ্গে টাইটানিকের সংঘর্ষের খবর এখানেই প্রথমে আসে। এখানে বোর্ডরুম, ডিরেক্টর্স এন্ট্রান্স, লবি এবং টাইটানিকের শীর্ষস্থানীয় স্থপতি এবং নির্মাতাদের অফিসগুলো আগের মতোই রাখা হয়েছে।

এই হোটেলে প্রবেশ করামাত্র যে কেউ সেই টাইটানিক ট্রাজেডির কথা মনে করবে। এটা শুধু টাইটানিকের পরিণতির ইতিহাস নয়, এখানে ছড়িয়ে রয়েছে টাইটানিকের জন্মের ইতিহাস।  

হোটেলের ১১৯টি শিল্পকর্ম  ভবনের ইতিহাস সংরক্ষণ করে। আগের মতোই আছে হারল্যান্ড অ্যান্ড উলফ-এর সেই শিল্পকর্মগুলো। সেই আসবাবপত্রগুলো আছে। হোটেল চালুর আগ দিয়ে ড্রইং অফিসারদের একজন অস্থায়ীভাবে প্রদর্শনীর আয়োজন করেন। সেখানে ভবনটির নির্মাণ এবং সংস্কার বিষয়ক চিত্র প্রদর্শিত হয়। ভবনের ঐতিহ্যের সাক্ষী হতে ঘুরে দেখানোরও ব্যবস্থা রয়েছে।  

হোটেলে চাইলে থাকতেও পারবেন। প্রতিরাতের ভাড়া শুরু হয়েছে ১২৫ ইউরো থেকে। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস 


মন্তব্য