kalerkantho


প্রকৃতিপ্রেমীদের জন্যে দারুণ কিছু কাজের ফিরিস্তি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ অক্টোবর, ২০১৭ ১৩:৩৮



প্রকৃতিপ্রেমীদের জন্যে দারুণ কিছু কাজের ফিরিস্তি

সামান্য সময়ের জন্যে দুচোখ বন্ধ করুন। প্রকৃতির অপরূপ দৃশ্য, শব্দ আর গন্ধ নিচ্ছেন ভাবুন।

ভেবে নিন আপনি দূরে কোথাও প্রকৃতির মধ্যেই রয়েছেন। হয়তো দেখছেন ঘন জঙ্গলের মধ্য দিয়ে এক চিলতে পথ চলে গেছে। বুনো ফুলের গন্ধ নাকে আসছে। কিংবা কোনো পর্বতের চূড়ায় দাঁড়িয়ে আছেন আকাশের কাছাকাছি। সাগরের উত্তার ঢেউ ছুঁয়ে বাতাস এসে সিক্ত করছে আপনাকে। জলপ্রপাতের শব্দ আসছে কানে।  

প্রকৃতিপ্রেমী আসলে তাদেরকেই বলে যারা ঘরের বাইরে ছুটে যেতে যান। যারা চলে যেতে চান প্রকৃতির এই অবর্ণনীয় রূপ দেখতে। কেবল বাইরে ছুটে যাওয়া প্রকৃতিপ্রমীদের কাজ নয়।

তারা বন, আকাশ, সাগর, প্রাণীদের মনভরে দেখতে চান। প্রকৃতি আমাদের নতুন নতুন পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে শিক্ষাস দেয়। আমাদের মনে করিয়ে দেয় যে, এই পৃথিবী সময়ের সঙ্গে বদলে যায়। অতি সাধারণের মাঝে অসাধারণ সৌন্দর্য দেখিয়ে দেয় আমাদের। সেই সঙ্গে আমাদের প্রতিদিনের জীবনের মানসিক চাপ আর অবসাদ দূর করে। প্রতিদিনই প্রকৃতি মায়ের মতো আমাদের নতুন কিছু না কিছু শেখায়। ঘরের বাইরে গিয়ে এ শিক্ষা গ্রহণের হাজারো উপায় মেলে। কিছু কাজ আছে যা সত্যিকার অর্থেই আপনাকে কিছু মূল্যবান শিক্ষা দেবে। সেই সঙ্গে স্বল্পপরিসরে হলেও ভ্রমণের স্বাদও মিলবে।  

হাইকিং 
প্রকৃতির আনন্দে মিশে যাওয়ার অতি কার্যকর এক পন্থা। পাহাড়ের কাছাকাছি চলে যান। বন-পাহাড়ের পথে চলতে থাকুন। পাহাড়ের চূড়া ওঠার পরিকল্পনা হাতে নিন। হাইকিং আসলে এমন কোনো কাজ নয় যার জন্য অতি আধুনিক যন্ত্রপাতি আর প্রশিক্ষণের দরকার। এক জোড়া বুট জুতা, মানচিত্র আর অভিযানের অদম্য ইচ্ছাশক্তিই যথেষ্ট।  

ক্যাম্পেইন 
কেন কেবল ঘরের ভেতরে থাকবেন? একটু বেশি সময় ধরে রোমাঞ্চের স্বাদ নিতে দূরে কোথাও ক্যাম্পেইনের আয়োজন করুন। বিশেষ করে খোলামেলা আর জনশূন্য কোনো পাহাড়ি এলাকায় এ কাজটি করতে পারলে সে অভিজ্ঞাতার কথা আজীবন ভুলবেন না।  

পাহাড় আর পথে সাইক্লিং
যদি সাইকেল না থাকে তো কিনে ফেলতে পারেন শুধু এ কাজে। অনেক দূরে যেতে হবে না। যান্ত্রিক শহরের কোনো নির্জন রাস্তা দিয়ে কিছুক্ষণ সাইকেল চালালেই অসাধারণ অনুভূতি মিলবে। আর যদি বন বা পাহাড়ের আশপাশে থাকেন, তাহলে তো কথাই নেই। প্রতিদিনই সাইকেল নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ুন।  

কায়াকিং আর ক্যানোইং 
কক্সবাজারে কায়াকিংয়ের ব্যবস্থা আছে। এখন সেখানে তো আর প্রতিদিন যাওয়া যায় না। তবে ভ্রমণে যেতে প্যারাস্যুটের সঙ্গে উড়ার স্বাদ নিতে ভুলবেন না। ক্যারোইং মানে হলো কোনো জলপ্রপাতের ঝিরি বেয়ে নৌকা নিয়ে যাওয়া। আমাদের দেশে এর সুযোগ কোথায়? কাজেই আশপাশে লেক বা দীঘি বা নদী থাকলে একটা নৌকানিয়ে ঘুরে আসতে পারে।  

বাগান করা 
এই কাজটাকে কিন্তু অন্যান্য কাজের মধ্যে বেখাপ্পা মনে করবেন না। বাগান করার কাজটি কিন্তু দারুণ উপভোগ্য। আর প্রকৃতির সঙ্গেই থাকতে পারছেন। বাড়িতে উঠোন থাকলে বা ছাদে বা অন্তত বারান্দায় ছোট পরিসরে হলেও বাগান করে ফেলতে পারেন। বারান্দায় তো আর বাগান করা যায় না। তাই কয়েকটি টবে প্রিয় ফুলের গাছ লাগিয়ে দেখুন কত ভালো লাগে! এ ধরনের কাজ আপনার মনে তৃপ্তি দেয়।  
সূত্র : সেভ সেভেনটি 


মন্তব্য