kalerkantho


স্বাধীনতার প্রশ্নে আলোচনার পথে হাঁটছে কাতালোনিয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ অক্টোবর, ২০১৭ ০৬:৫০



স্বাধীনতার প্রশ্নে আলোচনার পথে হাঁটছে কাতালোনিয়া

আলোচনা করেই স্বাধীনতা চাই। প্রাদেশিক আইনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে এমনই জানালেন কাতালোনিয়ার মুখ্য প্রশাসক (প্রেসিডেন্ট)কার্লোস পুজদেমন।

তার বক্তব্য থেকে পরিষ্কার এখনই স্পেন সরকারের সঙ্গে চূড়ান্ত সংঘর্ষের পথে যেতে চায় না কাতালোনিয়া প্রদেশ।

স্পেন ভাগ হওয়ার সম্ভাবনা আপাতত স্থগিত হল বলেই মনে করা হচ্ছে। প্রশ্ন উঠেছিল কাতালোনিয়া বিচ্ছিন্ন হলে বিশ্বের অন্যতম ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনা কি হাতছাড়া হবে স্পেনের। কারণ এই ক্লাবটি কাতালোনিয়া প্রদেশেই অবস্থিত। আপাতত স্পেনেই থাকছে সেই ক্লাব।

টানটান উত্তেজনার মধ্যেই কাতালোনিয়া প্রাদেশিক সরকার জানিয়েছে, স্বাধীনতার দাবিতে হওয়া গণভোট আপাতত স্থগিত করা হোক। সরকারের সঙ্গে আলোচনার পথ খোলা থাকুক। কাতালোনিয়ার গণভোটকে অবৈধ বলেছে স্পেন সরকার।

কাতালোনিয়াকে স্বাধীন দেখতে কোনওমতেই রাজি নয় স্পেন সরকার।

এই বিষয়ে আলোচনার প্রয়োজন নেই বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। স্বাধীনতার দাবিকে বিচ্ছিন্নতাবাদী তকমা দিয়েছেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী।

কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার দাবি প্রকট হতেই ইউরোপের রাজনীতিতে আলোড়ন ছড়িয়েছিল। মঙ্গলবার প্রাদেশিক সরকার কী ঘোষণা করতে চলেছে তার দিকেই নজর ছিল আন্তর্জাতিক মহলের।

এদিকে কাতালোনিয়া সংকট ইস্যুতে একাধিক রাষ্ট্র স্পেন সরকারের পাশেই দাঁড়ায়। ফলে রীতিমতো একঘরে হয়ে গিয়েছিল কাতালোনিয়া প্রদেশ সরকার। খোদ জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার বিরোধিতা করেন। ফ্রান্সের তরফেও কাতালোনিয়াকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেওয়া হবে না বলেই জানানো হয়।

স্বাধীনতার দাবিতে অনড় কাতালানবাসী ও অখণ্ড আর স্পেনের দাবিতে অনড় বাকি দেশবাসী, দু তরফের ঘাত প্রতিঘাতে উত্তপ্ত  ইউরোপের চতুর্থ বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ।


মন্তব্য