kalerkantho


ইন্তিফাদার ডাক দিল হামাস, গাজায় ফের ইসরাইলি হামলার আশঙ্কা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২১:৪৭



ইন্তিফাদার ডাক দিল হামাস, গাজায় ফের ইসরাইলি হামলার আশঙ্কা

জেরুজালেমকে ইজরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তারই প্রতিবাদে আরব দুনিয়া উত্তাল।

এবার মার্কিন সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র অসন্তোষ জানিয়ে তীব্র গণ অভ্যুত্থান বা ইন্তিফাদার ডাক দিল হামাস সশস্ত্র গোষ্ঠী। এই সংগঠনটি ইসরায়েল দ্বারা অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ড শাসন করে।

হামাসের হুমকির সাথে সাথে গাজা ঘিরে ফের অশান্তির মেঘ ঘনিয়ে এসেছে। ধারণা করা হচ্ছে, এই ছোট্ট ভূখণ্ড ঘিরে ফের ইসরায়েল তার সামরিক অভিযান শুরু করতে চলেছে। গাজায় ক্ষমতাসীন হামাস গোষ্ঠীকে জঙ্গি তকমা দিয়ে ইসরায়েল আগেও লাগাতার অভিযান চালিয়েছে। সংঘর্ষে বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

সংবাদ সংস্থা আল জাজিরা জানাচ্ছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে গণ অভ্যুত্থানের ডাক দিয়েছেন হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়া। তিনি বলেন, ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত ফিলিস্তিনীয়দের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার শামিল। ইহুদি শত্রুদের বিরুদ্ধে আমাদের ইন্তিফাদার ডাক দেয়া উচিত।

প্রচলিত অর্থে ইসরায়েলি দখলদারির বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনীয়দের প্রতিরোধ আন্দোলনকে বলা হয় ইন্তিফাদা। ১৯৮০ এর দশকের শেষ দিকে এবং ১৯৯০ এর দশকের শুরুর দিকে ওয়েস্ট ব্যাংক এবং গাজা  ভূখণ্ডে দুবার গণ আন্দোলন হয়েছে। এই দুই আন্দোলনকে প্রথম ও দ্বিতীয় ইন্তিফাদা বলা হয়।

প্রথম রক্তাক্ত ইন্তিফাদা শুরু হয়েছিল ১৯৮৭ সালে এবং চলে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত। দ্বিতীয় ইন্তিফাদা হয়েছিল ২০০০ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত। এতেও বহু মানুষের মৃত্যু হয়।

একদিকে ফিলিস্তিনীয় তথা আরব মুসলিম অধ্যুষিত গাজা ভূখণ্ড মাঝে ইসরায়েল আর অপর প্রান্তে ফিলিস্তিনীয় কর্তৃপক্ষের শাসন এবং ওয়েস্ট ব্যাংক। এই নিয়ে আরব দুনিয়ার বিতর্কিত এলাকা। ফিলিস্তিনীয় ও ইসরায়েলি অধিকৃত এলাকার মাঝে পড়ে জেরুজালেম শহর।

বুধবার হোয়াইট হাউস থেকে দেয়া এক ভাষণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা করেন। সেখানে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর করা নির্দেশ দেন। এরপরেই আরব দুনিয়া সহ আন্তর্জাতিক মহলে ছড়ায় তীব্র অসন্তোষ। প্রতিবাদে বহু দেশে বিশেষ করে মুসলিম প্রধান দেশগুলিতে আমেরিকার পতাকা পুড়িয়ে প্রতিবাদ জানানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, প্রস্তাবিত ফিলিস্তিন রাষ্ট্রে দুটি দল সক্রিয়। একটি হামাস, অন্যটি ফাতাহ। এর মধ্যে হামাসের দখলে রয়েছে গাজা ভূখণ্ড। ২০০৪ সালে ফিলিস্তিনীয়দের অন্যতম নেতা তথা প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের প্রধান ইয়াসির আরাফাতের মৃত্যু হয় তার পর হামাস ও ফাতাহ-র মধ্যে সম্পর্কের অবনতি হয় এবং সেটা চরম আকার ধারণ করে ২০০৬ সালে। ২০০৭ সালে গাজা ভূখণ্ডে হামাস সশস্ত্র সংগঠনের কাছে ফাতাহ পরাজয় স্বীকার করে। সেই থেকে গাজা শাসন করছে হামাস।


মন্তব্য