kalerkantho


বেলুচিস্তানেও বাংলাদেশের ৭১-এর মতোই ধর্ষণ করছে পাকিস্তানি সেনারা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৭:২২



বেলুচিস্তানেও বাংলাদেশের ৭১-এর মতোই ধর্ষণ করছে পাকিস্তানি সেনারা!

নারকীয় অত্যাচার করছে পাকিস্তানি সেনারা। নারীদের ধরে সেনা ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করা হচ্ছে। এই অত্যাচার ১৯৭১ সালের তৎকালীন পূর্বপাকিস্তানের ভয়ঙ্কর অবস্থার পুনরাবৃত্তি। এমনই মারাত্মক অভিযোগ করলেন পাকিস্তানের মানবাধিকার কর্মী ফরজানা মজিদ বেলুচ। তাঁর অভিযোগ এমন সময়ে এল যখন বেলুচিস্তানে সেনা অভিযান চালাচ্ছে পাকিস্তান সরকার।

পাকিস্তানি সংবাদ মাধ্যম দুনিয়া নিউজ (Dunya News) জানাচ্ছে, পাকিস্তানের পাঞ্জাব ও বেলুচিস্তান প্রদেশের সীমান্তে চলছে সেনা অভিযান। খবরে সন্ত্রাসবাদকে রুখতে অভিযান চালানোর প্রসঙ্গ থাকলেও বেলুচ মানবাধিকার কর্মীদের দাবি, বিক্ষুব্ধ কণ্ঠস্বর দমিয়ে রাখতে বেলুচিস্তানে চলছে সেনা অভিযান। সেই প্রসঙ্গেই ফরজানা মাজিদ বেলুচ ১৯৭১ সালের ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধে বাংলাদেশের স্বাধীনতার লড়াইয়ের প্রসঙ্গ টেনেছেন।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই (ANI)-কে দেওয়া বিশেষ সাক্ষাৎকারে তাঁর দাবি, মুক্তিযুদ্ধের সময় যেভাবে পূর্বপাকিস্তানের বাঙালি মহিলাদের নির্বিচারে গণধর্ষণ ও খুন করা হতো বেলুচিস্তানেও তৈরি হয়েছে একই পরিস্থিতি। অন্তত ৪০ জন নারীকে ক্যাম্পে টেনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। শিশুদেরও রেহাই দেওয়া হচ্ছে না।

ফরজানা মজিদ জানিয়েছেন, বেলুচ নারীরা রাজনৈতিকভাবে সচেতন। তাই তাঁদের উপর অত্যাচার করা হচ্ছে। ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বোলান অঞ্চলে।

বেলুচিস্তানের স্বাধিকারের দাবিতে গত দীর্ঘ ৬০ বছর ধরেই চলছে বিক্ষোভ। বেলুচ বিদ্রোহীরা সরাসরি পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে সশস্ত্র আন্দোলন করছে। বারেবারে এখানে সেনা অভিযান হয়েছে। বিশেষকরে ডেরা বুগতি এলাকায়। অঞ্চলটি বিদ্রোহীদের মূল ঘাঁটি। এখানেই থাকতেন বিদ্রোহী বেলুচদের প্রধান নেতা নবাব আকবর বুগতি। পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশারফের নির্দেশে সেনা অভিযানে খুন করা হয় এই বেলুচ নেতাকে।

বেলুচিস্তান প্রদেশটি পাকিস্তানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্রদেশ। আফগানিস্তান ও ইরানের সীমান্তে মিশে থাকা এই এলাকায় রয়েছে বিখ্যাত গোয়াদর বন্দর। আরব সাগরের তীরে এই বন্দরকে ঘিরে চীন মধ্য ও পশ্চিম এশিয়ায় বাণিজ্য সম্প্রসারণে উদগ্রীব। চীনের কাশগড় থেকে পাকিস্তানের গোয়াদর বন্দর পর্যন্ত ২৪৪২ কিলোমিটার দীর্ঘ চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক অঞ্চল (CPEC) নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। 

বেলুচিস্তানের মাটিতে এই প্রকল্প হলে রক্তাক্ত পরিস্থিতি হবে। হুমকি বেলুচ  বিদ্রোহীদের। এরপরেই বেলুচিস্তানে ফের সেনা অভিযান শুরু করেছে পাকিস্তান সরকার। তাতেই উঠছে রক্তাক্ত মুক্তিযুদ্ধের প্রসঙ্গ। বিদ্রোহী নেতৃত্বের হুঁশিয়ারি- বেলুচিস্তানেও ১৯৭১ সালের মতো করুণ ও লজ্জাজনক পরাজয় হবে পাকিস্তানি সেনাদের।


মন্তব্য