kalerkantho


'বোমা সাইক্লোনের' পর সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ১১:০৫



'বোমা সাইক্লোনের' পর সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

ছবি অনলাইন

'বোমা সাইক্লোন' নামে তীব্র তুষার ঝড়ের পর প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলীয় রাজ্যগুলোর জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে; মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে অন্তত ১৯ জনের। এতে কানাডায় আরো দুজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

নিউ হ্যাম্পশায়ারের মাউন্ট ওয়াশিংটনের তাপমাত্রাকে সবচেয়ে বাজে বলা হচ্ছে। সেখানে হিমাঙ্কের নিচে ৬৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস (-৬৭) তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় শুক্রবার রাতে।


আরো পড়ুন : প্রশান্ত ও আটলান্টিক মহাসাগরে তেলক্ষেত্র অনুসন্ধান করবে যুক্তরাষ্ট্র


বিভিন্ন রাজ্যে প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এর মধ্যে নিউ জার্সিকে গড় তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নিচে সাত ডিগ্রিতে আছে।

বিরূপ আবহাওয়ায় বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত নিউ ইয়র্ক এবং নিউজার্সিসহ বিভিন্ন রাজ্যের কয়েক হাজার ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

নতুন বছরের প্রথম প্রহরে শুরু হাড় কাঁপানো শৈত্যপ্রবাহের অবনতি ঘটে বৃহস্পতিবার ভোরে। হিমাঙ্কের নিচে তাপমাত্রার সঙ্গে যোগ হয় ৫০ থেকে ৬০ মাইল বেগে প্রবাহিত তুষার ঝড়, যাকে স্থানীয়ভাবে 'বোমা সাইক্লোন' বলা হচ্ছে।


আরো পড়ুন : যুক্তরাষ্ট্রে তুষার ঝড়ে ৪ লাখ বাংলাদেশিসহ দেড় কোটি মার্কিনী গৃহবন্দি


যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সাউথ ক্যারোলাইনা, নর্থ ক্যারোলিনা, উইসকনসিন, মিসৌরি, মিশিগান, নর্থ ডাকোটা, ভার্জিনিয়া, মেরিল্যান্ড, ডিসি, পেনসিলভানিয়া, ডেলাওয়্যার, নিউজার্সি, কানেটিকাট, ম্যাসাচুসেটস, রোড আইল্যান্ড, নিউ হ্যাম্পশায়ার, ভারমন্ট, নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের প্রায় দেড় কোটি বাসিন্দা বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এক রকম গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে।

এসব এলাকায় ১২ ইঞ্চি থেকে ২৪ ইঞ্চি পর্যন্ত তুষারপাতের কথা জানিয়ে বৃহস্পতিবার রাতের জাতীয় আবহাওয়া বার্তায় বলা হয়, বোস্টন ও লং আইল্যান্ডের উপকূলীয় এলাকায় ১২ থেকে ১৫ ফুট পর্যন্ত জলোচ্ছ্বাসও হয়েছে। গলে যাওয়া বরফের পানিতে ডুবে যায় বোস্টনের রাস্তা।

দুর্যোগের কারণে নিউ ইয়র্ক, বোস্টন, ফিলাডেলফিয়া, বাল্টিমোর, প্রভিডেন্স, রোড আইল্যান্ডসহ ১১টি শহরের সব স্কুলে বৃহস্পতিবার ছুটি ঘোষণা করা হয়। সরকারি অফিসে উপস্থিতির ওপর ছিল না কোনো বাধ্যবাধকতা।

নিউ ইয়র্ক, নিউজার্সি, পেনসিলভেনিয়া, ম্যাসাচুসেটস ও কানেটিকাট অঙ্গরাজ্যের বিস্তীর্ণ এলাকায় জরুরি অবস্থা জারি করা হয়। লোকজনকে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দেন রাজ্য গভর্নরেরা।

নিউ ইয়র্ক এবং নিউজার্সির বিভিন্ন বিমানবন্দরের দুই হাজার ফ্লাইটসহ বস্টন, ফিলাডেলফিয়া, ভার্জিনিয়া এলাকার চার হাজার ফ্লাইট বাতিল করতে হয় বলে জানান পোর্ট অথরিটির নির্বাহী পরিচালক রিক কটন।

 নিউ ইয়র্ক সিটির জ্যামাইকা, জ্যাকসন হেইটস, চার্চ-ম্যাকডোনাল্ড, ওজনপার্ক, পার্কচেস্টার, হাডসন, নিউজার্সির প্যাটারসন, আটলান্টিক সিটি, পেনসিলভেনিয়ার ফিলাডেলফিয়া, আপারডারবি, মিল বোর্ন সিটির বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকার সব দোকানপাট ছিল জনমানব শূন্য।
সূত্র : বিবিসি


মন্তব্য