kalerkantho


কৃমি খেলো ২২ লিটার রক্ত!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ১০:৪৫



কৃমি খেলো ২২ লিটার রক্ত!

কৃমি খেলো ২২ লিটার রক্ত! সত্যিই এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের দিল্লিতে। অনেকদিন ধরেই ১৪ বছরের এক কিশোরের মলের সঙ্গে রক্তপাত হচ্ছিল। বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা করেও এই রক্তপাতের সঠিক কারণ জানা যাচ্ছিল না। কিন্তু রক্তে আয়রনের অভাব বেড়েই চলেছিল। পরিস্থিতি সামাল দিতে কিশোরকে রক্ত দেওয়া শুরু হয়। দুই বছর ধরে চলে এমন অবস্থা। এই সময়ে প্রায় ৫০ ইউনিট বা ২২ লিটার রক্ত দিতে হয় ওই কিশোরকে। জার্নাল অব ইনফেকশাস ডিজিজেস অ্যান্ড থেরাপির বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশ করেছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।


আরো পড়ুন: পেটে কৃমি আছে কি না কীভাবে বুঝবেন


ওই কিশোরের হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ নেমে দাঁড়ায় ৫.৮৬। ইজিডি, কোলনোস্কোপি, রেডিওগ্রাফি করেও খুঁজে পাওয়া যায়নি কী কারণে অন্ত্রের রক্তপাতের আসল কারণ। শেষে ওই কিশোরকে দেশটির শ্রী গঙ্গারাম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের চিকিৎসকরা ক্যাপসুল-সাইজ এন্ডোস্কোপি করার সিদ্ধান্ত নেন। এতে একটি তারহীন ক্যামেরা পেটের ভেতরের ছবি তোলে। ভিটামিনের ক্যাপসুলের মতো একটি খোলের ভিতর ক্যামেরাটি থাকে। সেই পরীক্ষার ফলাফল দেখে চোখ কপালে ওঠে চিকিৎসকদের।


আরো পড়ুন: শিশুর কৃমি : কারণ ও প্রতিকার জেনে নিন


শ্রী গঙ্গারাম হাসপাতালের গ্যাস্ট্রোএন্ট্রোলজি বিভাগের প্রধান অনিল আরোরা বলেন, আমরা দেখতে পাই অনেকগুলো বক্র কৃমি বা হুকওয়ার্ম লুকিয়ে রয়েছে ক্ষুদ্রান্ত্রের ভেতরে। তারা প্রায় নেচে নেচে রক্ত চুষছে। কৃমির মধ্যে রক্ত জমে আছে, তা দেখা যায়। তিনি আরো বলেন, কৃমিগুলো লাল রঙের হয়ে উঠেছিল। সাদা রঙের কৃমিও দেখা গেছে। তারপরেই কিশোরের চিকিৎসা শুরু হয়। তার রক্তের হিমোগ্লোবিনের মাত্রাও বাড়তে থাকে। উল্লেখ্য, সাধারণত বক্রকৃমি এশীয়দের মধ্যেই দেখা যায়। এই কৃমির হাত থেকে বাঁচতে স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া ও জুতো পরে হাঁটা উচিত।

 


মন্তব্য