kalerkantho


‘ভারত পরমাণু হামলা করলে পাকিস্তানও পাল্টা আক্রমণ করবে’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ২০:২৩



‘ভারত পরমাণু হামলা করলে পাকিস্তানও পাল্টা আক্রমণ করবে’

ভারত যদি পরমাণু হামলা করে তাহলে পাকিস্তান চুপ থাকবে না। পাকিস্তানও পাল্টা আক্রমণ করবে। এমনকি পাকিস্তানের কাছে যথেষ্ট পারমানবিক অস্ত্রও রয়েছে ভারতের সঙ্গে মোকাবিলা করার জন্য। পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গাফুর আজ সাংবাদিক সম্মেলনে ভারতকে এভাবেই সতর্ক করেছেন।

তিনি আরও বলেন, পরমাণু শক্তিধর দুই রাষ্ট্রের মধ্যে যুদ্ধের পরিস্থিতি তৈরি না হওয়াই শ্রেয়। কিন্তু ভারত যদি যুদ্ধের পরিস্থিতির সৃষ্টি করে তাহলে পাকিস্তানও পিছিয়ে থাকবে না। তবে, ভারত যদি সেই শক্তির পরীক্ষানিরীক্ষা করতে চায় তাহলে পাকিস্তানও নাকি প্রস্তুত রয়েছে। তাই ভারত চাইলে পরমাণু যুদ্ধে পাকিস্তানের শক্তি পরখ করে দেখতে পারে৷ এমন কড়া ভাষাতেই ভারতকে রীতিমত হুমকি দিলেন আসিফ গাফুর।

সম্প্রতি ভারতের আর্মি ডে উপলক্ষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পাকিস্তানকে কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন ভারতের সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত। তিনি বলেছিলেন, সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তান যদি ভারতে পরমাণু হামলার ছক কষে তাহলে ভারত সেই হামলার ভয়ে গুটিয়ে থাকবে না। পাকিস্তানের কাছে পরমাণু অস্ত্রশস্ত্রের অভাব নেই। তবে, সেই পরমাণু হামলার ভয় পায় না ভারত। ভারতের সেনা বাহিনীও প্রস্তুত পালটা হামলা চালানোর জন্য। পাকিস্তান পরমাণু হামলা করলে সেই হামলার পালটা জবাব দেবে ভারতও। এমনকি পরমাণু মিসাইল ছুঁড়তেও দুবার ভাববে না!

ভারতীয় সেনা প্রধান বিপিন রাওয়াতের ওই হুঁশিয়ারির পর পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা আসিফ ভারতকে পরমাণু যুদ্ধে নেমে পাকিস্তানের শক্তি পরীক্ষা করার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা আসিফ ট্যুইট করে বলেন, ‘ভারতীয় সেনাপ্রধান অত্যন্ত দায়িত্বজ্ঞানহীনের মত মন্তব্য করেছেন। পদে থেকে এমন কথা বলা উচিৎ নয়। নিউক্লিয়ার এনকাউন্টারের আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। সেটাই যদি কাম্য হয়, তাহলে সেই পরমাণু যুদ্ধে আমাদের শক্তি পরীক্ষা করুন। এতেই জেনারেল রাওয়াতের সব সন্দেহ দূর হবে। ইনশাআল্লাহ।’


মন্তব্য