kalerkantho


পশ্চিমবঙ্গ পেল ২ লাখ ২০ হাজার কোটির বিনিয়োগ এবং ২০ লাখ কর্মসংস্থান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৬:৫১



পশ্চিমবঙ্গ পেল ২ লাখ ২০ হাজার কোটির বিনিয়োগ এবং ২০ লাখ কর্মসংস্থান

আক্ষরিক অর্থেই সফল হলো ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন। বিপুল লগ্নি প্রস্তাবে আশার আলো দেখছে পশ্চিম বাংলা। বুধবার কলকাতার নিউটাউনের কনভেনশন সেন্টারে সম্মেলনের শেষ দিনে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, ‘আমাদের রাজ্যে ২ লাখ ১৯ হাজার ৯২৯ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রস্তাব পাওয়া গিয়েছে। মোট ১১০টি মউ বা সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। এখন লক্ষ্য এই বিপুল লগ্নি প্রস্তাবকে বাস্তবে পরিণত করা। তাহলেই গড়ে উঠবে সোনার বাংলা। আমরা বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনে ব্যাপকভাবে সদর্থক সাড়া পেয়েছি। যার ফলে আমাদের রাজ্যে ২০ লাখ কর্মসংস্থান হতে পারে।’

প্রথম দিনেই বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনের সুর বেঁধে দিয়েছিলেন ভারতের সবচেয়ে বড় শিল্পগোষ্ঠী রিলায়েন্স এর কর্ণধার মুকেশ আম্বানি। তিনি পশ্চিম বঙ্গের জন্য যে আশার আলো ছড়িয়েছিলেন, সেই আলোতেই যুক্ত হয়েছে আরও রংবেরংয়ের রোশনাই। ফলে এবার বিশ্ববঙ্গ সম্মেলন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে সেরার সেরা তকমা পেয়েছে।

আম্বানি-জিন্দালদের পর আরেক বৃহত্তম ভারতীয় শিল্পগোষ্ঠী আদানি শিল্পগোষ্ঠীও পশ্চিমবঙ্গে বিপুল বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। আদানি গোষ্ঠার প্রণব আদানি বলেন, ‘ইতিমধ্যে তাঁরা ৭৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। এবার এর দ্বিগুণ বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে পশ্চিম বঙ্গে এই টাকা বিনিয়োগ করবেন তাঁরা। আবাসন শিল্পে তাঁরা এই বিনিয়োগ করতে চান।’

আরও পড়ুন: রাখাইনে আবারো উত্তেজনা, পুলিশের গুলিতে নিহত ৭

এরপরই সমাপনী ভাষণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘আমরা কম কথা বলি, কাজ বেশি করি। সেই লক্ষ্যেই পশ্চিম বঙ্গকে বেস্ট বেঙ্গলের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি। তার সদর্থক প্রভাব যে পড়েছে, তা এবার বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনই প্রমাণ করে দিয়েছে। যেমন বিপুল সাড়া পাওয়া গিয়েছে, তেমনই দেশ-বিদেশের প্রথম সারির শিল্পপতিরা পশ্চিম বঙ্গে আসার আশ্বাস দিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘এই দুদিনে বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন থেকে মোট ২ লাখ ১৯ হাজার ৯২৫ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রস্তাব পাওয়া গিয়েছে। তা বাস্তবায়িত হলে সোনার বাংলা গড়ে উঠবে। বিপুল কর্মসংস্থান হবে।’ সব শিল্প বাস্তবায়িত হলে অন্তত ২০ লাখ কর্মসংস্থান হবে বলে জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, ‘পশ্চিম বঙ্গে  ল্যান্ড ব্যাঙ্ক আছে, শিল্প-জমিনীতি রয়েছে, ফলে শিল্পপতিরা পশ্চিমবঙ্গে এলে তাঁদের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে কোনো সমস্যাই হবে না।’

তিনি বলেন, ‘ম্যানুফ্যাকচারিংয়ে প্রচুর বিনিয়োগের প্রস্তাব এসেছে। পর্যটন শিল্পেও প্রচুর বিনিয়োগ।বিনিয়োগের প্রস্তাব দিয়েছেন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ-এর প্রধান মুকেশ আম্বানি। মুকেশ আম্বানির প্রকল্পে ১ লক্ষ কর্মসংস্থান হবে।’

আরও পড়ুন: মোস্ট ওয়ান্টেড: দিল্লির বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামা ১০ ভয়ংকর অপরাধী

পশ্চিম বঙ্গে বিনিয়োগে উৎসাহ দেখাচ্ছেন বিদেশি শিল্পপতিরাও। বিনিয়োগের আশ্বাস দিয়েছেন সজ্জন জিন্দল ও স্পাইস জেট কর্তৃপক্ষ।

প্রসঙ্গত, বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনের আজই শেষ দিন। লক্ষ্মী নারায়ণ মিত্তাল, মুকেশ আম্বানি, আদানির মতো ভারতের বড় বড় শিল্পপতিরা যোগ দিয়েছেন সম্মেলনে। এছাড়াও যোগ দিয়েছেন নানা ছোট-বড় ভারতীয় ও অভারতীয় বাণিজ্য সংস্থার কর্ণধাররা।


মন্তব্য