kalerkantho


পাকিস্তানে প্রথম হিন্দু নারী সাংসদ হতে পারেন দরিদ্র কৃষ্ণা কুমারী!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২১:৩৪



পাকিস্তানে প্রথম হিন্দু নারী সাংসদ হতে পারেন দরিদ্র কৃষ্ণা কুমারী!

প্রথম কোনো হিন্দু নারী সাংসদ হতে চলেছেন পাকিস্তানে। তাও আবার দরিদ্র পরিবার থেকে আসা। ৩৯ বছর বয়সী কৃষ্ণা কুমারীকে পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) সিনেটের নির্বাচনে প্রার্থী করেছে বলে জানা গিয়েছে। তিনি নির্বাচনে জিতে গেলে প্রথম হিন্দু নারী সাংসদের পদে আসীন হবেন।

পাকিস্তানে এর আগে বেশ কয়েকজন সংখ্যালঘু দেশটির গুরুত্বপূর্ণ পদে এসেছেন। স্বাধীন পাকিস্তানের প্রথম আইনমন্ত্রী ছিলেন যোগেন্দ্রনাথ মণ্ডল। পরে পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি হন রানা ভগবান দাস। এছাড়াও আরো বেশ কয়েকজন পাকিস্তানি সংখ্যালঘুর নাম উঠে এসেছে বারেবারে।

আরও পড়ুন: ভারত মহাসাগর দখলে উঠেপড়ে লেগেছে চীন

পাকিস্তানে সাধারণত উচ্চস্তরীয় অভিজাত ব্যক্তিদেরই সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হয়। কিন্তু এই প্রথম পাকিস্তানের এক সংখ্যালঘু দরিদ্র নারীকে নির্বাচনে লড়ার টিকিট দেওয়া হয়েছে।

কৃষ্ণা কুমারী জানিয়েছেন, তাঁর চিন্তাভাবনার বাইরে ছিল সমগ্র বিষয়টি। এর পাশাপাশি পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রদর্শন করেন তিনি। সমাজে পিছিয়ে পড়া মানুষদের জন্যই তিনি কাজ করবেন বলে জানান।

আরও পড়ুন: বাধ্য হয়ে সাঈদকে সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা পাকিস্তানের

১৯৭৯ সালে সিন্ধের নগরপারকরে জন্মগ্রহণ করেন কৃষ্ণা। তিনি এবং তাঁর ভাই পিপিপি-র সঙ্গে যুক্ত। তবে বিয়ের পরেও তিনি তাঁর পড়াশোনা চালিয়ে যান এবং ২০১৩সালে তিনি সিন্ধ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজ বিজ্ঞান নিয়ে স্নাতকোত্তর অর্জন করেন।



মন্তব্য