kalerkantho


ইউরোপে ইহুদি নিধন এর জন্য ইহুদিরাও দায়ী!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২২:১৭



ইউরোপে ইহুদি নিধন এর জন্য ইহুদিরাও দায়ী!

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার হলোকস্ট বা ইহুদি নিধন এর অপরাধের জন্য পোলিশ ও অন্যান্যদের মতো ইহুদিরাও দায়ী, পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মাতেইস মোরাউইস্কির এমন বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। হলোকস্ট বিষয়ক একটি নতুন আইন করার পর থেকেই সমালোচনার মুখে রয়েছে পোল্যান্ড।

চলতি মাসেই পোল্যান্ড একটি নতুন আইন পাশ করে, যাতে ‘পোল্যান্ডও হলোকাস্টের সহযোগী ছিলো’ বলার জন্য কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়। এর তীব্র সমালোচনা করেছে ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্র।

এই আইনের অধীনে, জার্মান থার্ড রাইখের (হিটলারের আমলের জার্মানি এ নামেই পরিচিত ছিল) করা কোন অপরাধের জন্য পোলিশ জাতি বা রাষ্ট্রকে দায়ী বলা হলে, যে কেউ অর্থ দণ্ড বা সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হতে পারে।

আরও পড়ুন: যুবকের চোখে অ্যাসিড ইনজেকশন! পরকীয়ার জেরে বর্বর শাস্তি!

চলতি বছরের মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্স বসে ১৬ থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারি। এ কনফারেন্সে রিপোর্টার রোনেন বার্গম্যান পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞেস করেন, পোল্যান্ডে হলোকাস্ট থেকে বেঁচে যাওয়া তার মায়ের জীবনের গল্প বললে বা কয়েকজন পোলিশ গেস্টাপোদের সহযোগিতা করেছিলো, এমনটি বললে নতুন আইনে তিনি নিজেও দোষী সাব্যস্ত হতে পারেন কিনা?

এর উত্তরে মোরাউইস্কি বলেন, ‘অবশ্যই এটা দণ্ডযোগ্য হবে না, অপরাধ হিসেবে দেখা হবে না, যদি বলা হয় শুধুমাত্র জার্মান অপরাধীই নয়, সেখানে পোলিশ অপরাধী ছিলো এবং ছিলো ইহুদি অপরাধী, রাশিয়ান অপরাধী, ইউক্রেনিয়ান অপরাধী।’

আরও পড়ুন: শয্যাসঙ্গী হওয়ার বিনিময়ে হাইতির ভূমিকম্প আক্রান্তদেরকে ত্রাণ!

নেতানিয়াহু, নিজেও ওই মিউনিখ কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন। তিনি পোলিশ প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের বিরোধিতা করে বলেন, ‘পোলিশ প্রধানমন্ত্রী মিউনিখে যে বক্তব্যটি দিলেন তা ভয়ঙ্কর। এখানে ইতিহাস অনুধাবনে তার সক্ষমতায় সমস্যা রয়েছে। আমাদের লোকদের দুর্দশার প্রতি সংবেদনশীলতারও অভাব রয়েছে। আমি দ্রুতই এ ব্যাপারে তার সাথে কথা বলবো।’

ইসরায়েলের অন্যান্য কর্মকর্তারাও পোলিশ আইনটি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। মোরাউইস্কির মন্তব্যেরও বিরোধিতা করেছেন তারা।


মন্তব্য