kalerkantho


বাংলাদেশ সীমান্তে ভারতকে অস্থির করতে চাইছে পাকিস্তান ও চীন!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১০:৩৪



বাংলাদেশ সীমান্তে ভারতকে অস্থির করতে চাইছে পাকিস্তান ও চীন!

ভারতের বিরুদ্ধে ছায়া যুদ্ধ জারি রাখতে নতুন কৌশল নিয়েছে পাকিস্তান। কাশ্মীরের ছায়াযুদ্ধকে ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলে ছড়িয়ে দিতে উঠে পড়ে লেগেছে প্রতিবেশী দেশটি। বাংলাদেশ থেকে সীমান্ত পেরিয়ে সেখানকার মানুষদের ভারতে ঢোকাতে মদদ যোগাচ্ছে পাকিস্তান। ভারতের এই প্রান্তকেও কাশ্মীরের মতো অস্থির করে রাখতে পরিকল্পনা করে এই কাজ করা হচ্ছে বলে তোপ দাগলেন ভারতের সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত।

জেনারেল রাওয়াত বলেন, ‘পাকিস্তান পরিকল্পনা করে বাংলাদেশ থেকে ভারতে অনুপ্রবেশ করাচ্ছে মানুষ। একবার এই এলাকাকে হাতের মুঠোয় করে নিলে এখানেও ছায়াযুদ্ধ চালাতে তাদের সুবিধা হবে।’ আর পাকিস্তানকে এই কাজে মদদ যোগাচ্ছে তাদের সব কিছুর বন্ধু চীন।

নাম না করে তিনি বলেন, ‘ছায়া যুদ্ধ ভালোই খেলছে আমাদের পশ্চিম প্রান্তের প্রতিবেশী দেশ। আর এই কাজে মদদ যোগাচ্ছে উত্তর প্রান্তের এক প্রতিবেশী দেশ। দেশের উত্তর পূর্ব প্রান্তকে অস্থির রাখার ছক কষা হয়েছে।’

এই প্রসঙ্গে তিনি আসামে বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশের সমস্যার কথা তুলে ধরেন। বলেন, অবৈধ বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী সমস্যায় জেরবার আসাম। তাই রাজ্য সরকার নাগরিক তালিকা তৈরি করে দেখতে চাইছে রাজ্যে অবৈধ নাগরিকের সংখ্যা কত?

আসামে মুসলিম জনগোষ্ঠীর সংখ্যা যে হারে বাড়ছে তা নিয়ে পরোক্ষভাবে উদ্বেগ প্রকাশ করেন ভারতের সেনাপ্রধান। বলেন, আসামে এআইইউডিএফ নামে একটি রাজনৈতিক দল আছে। বিজেপির শক্তি এই রাজ্যে যতটা না বেড়েছে তার চেয়ে বহুগুণ শক্তি বাড়িয়েছে এই রাজনৈতিক দলটি।

প্রসঙ্গত ২০০৫ সালে মুসলিম জনগোষ্ঠীর স্বার্থে তৈরি হয় এআইইউডিএফ নামের এই দলটি। বর্তমানে ভারতের লোকসভায় তাদের তিনজন সাংসদ আছেন। রাজ্য বিধানসভায় ১৩ জন বিধায়ক আছেন।

সূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া


মন্তব্য