kalerkantho


শিক্ষকদের হাতে অস্ত্র থাকলে হামলা ঠেকানো যাবে : ট্রাম্প

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১১:২৯



শিক্ষকদের হাতে অস্ত্র থাকলে হামলা ঠেকানো যাবে : ট্রাম্প

স্কুলের একদল শিক্ষার্থীর সঙ্গে বসেছিলেন ট্রাম্প

শিক্ষকদের কাছে যদি অস্ত্র থাকে, তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনা অনেকটা ঠেকিয়ে দেওয়া যাবে বলে মনে করেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত সপ্তাহে ফ্লোরিয়ায় এক ভয়াবহ বন্দুক হামলায় ১৭ জনের মৃত্যুর পর যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের দাবি আরো জোরালো হয়েছে। তারই প্রেক্ষিতে এ প্রস্তাবে সমাধান দেখাচ্ছেন ট্রাম্প। 

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠানের কোনো অস্ত্রধারী সদস্য এমন হামলা খুব দ্রুত ঠেকিয়ে দিতে পারেন। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে মার্জরি স্টোনম্যান ডগলাস হাইস্কুলে ঘটে যাওয়া এ ঘটনায় যারা বেঁচে গেছেন, তাদের দুঃস্বপ্ন এখনো পিছু ছাড়েনি। বুধবার হোয়াইট হাউজে সেই স্কুলের একদল শিক্ষার্থীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন প্রেসিডেন্ট। আসলে ভবিষ্যতে এমন ঘটনা যেন না ঘটে সে আশ্বাস দিতেই তাদের মাঝে উপস্থিত হয়েছিলেন ট্রাম্প। সেখানেই সমাধানে পথ দেখাতে এ প্রস্তাব তোলেন তিনি। 

সেইসঙ্গে রিপাবলিকান দলের এই প্রেসিডেন্ট হামলাকারীদের অতীত ঘেঁটে দেখার ওপর আরো জোর দিয়েছেন। ট্রাম্প বলেন, তাদের অতীত জানতে খুব ভালোভাবে খতিয়ে দেখতে জোর দেব আমরা। 

এমন মারাত্মক পরিস্থিতিতে ট্রাম্প কোনো অস্ত্রধারী শিক্ষককে শক্তিশালী রক্ষাকর্তার ভূমিকায় দেখতে পাচ্ছেন। তিনি বলেন, যদি তোমাদের মাঝে এমন শিক্ষক থাকেন যার কাছে আগ্নেয়াস্ত্র থাকবে, তবে আক্রমণের মুহূর্তে তিনি অনেক কিছুই সামলে নিতে পারেন। এর জন্যে তাদের বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। কাজেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আর অস্ত্রমুক্ত এলাকা থাকছে না। 

তিনি আরো বলেন, হামলাকারীরা কাপুরুষ। আর তারা জানে এ ধরনের প্রতিষ্ঠান অস্ত্রমুক্ত থাকে। কাজেই তারা আরো বেশি সুযোগ পায়। 

আর্মড ক্যাম্পাসের তথ্যমতে, যুক্তরাষ্ট্রের একডজন অঙ্গরাজ্য ইতিমধ্যে ক্যাম্পাসে গোপনে অস্ত্র রাখার বিষয়টির অনুমোদন দিয়েছে। কিন্তু ফ্লোরিডা তা করেনি। 

কিন্তু এখন ট্রাম্প নিজেই শিক্ষকদের কাছে অস্ত্র দেওয়ার প্রস্তাব তুলেছেন। যদিও ২০১৬ সালের নির্বাচনী ক্যাম্পেইনে তিনি স্পষ্ট বলেছিলেন যে, ক্লাসরুমে অস্ত্র আনার বিষয়টি সমর্থন করেন না তিনি। 
সূত্র : বিবিসি 


মন্তব্য