kalerkantho


প্রতিবেশীদের ক্ষেপিয়েই চলেছেন এরদোয়ান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১১:৩৮



প্রতিবেশীদের ক্ষেপিয়েই চলেছেন এরদোয়ান

ছবি অনলাইন

সিরিয়ায় সামরিক অভিযান পরিচালনা করছে তুরস্ক। এদিকে তুরস্কের সঙ্গে গ্রিসের শত্রুতা আবার মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে। ইরাকের সঙ্গে শত্রুতা বেড়েছে। বাগদাদের ইচ্ছার বাইরে তুরস্ক উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইরাকে সেনা পাঠিয়েছে। এ ছাড়া আঙ্কারা সাইপ্রাসের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে নৌবাহিনীর জাহাজ পাঠিয়েছে। এতে গ্রিস ও মিসর ক্ষেপে আছে।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও তার সরকার যদি প্রতিবেশীদের ক্ষেপিয়েই চলে, তবে তারা বেশি দিন টিকে থাকতে পারবে না বলে জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও নিরাপত্তা বিশ্লেষক মার্ক স্লেবোদা।

মার্ক স্লোবোদা বলেন, এরদোয়ান সরকার যদি তার সম্ভাব্য সব বড় অংশীদার ও প্রতিবেশীদের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ করে, তবে তাদের পক্ষে টিকে থাকা কষ্টকর হবে। বুধবার রেডিও স্পুটনিককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ন্যাটো সদস্য তুরস্কের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কে দূরত্ব তৈরি হয়েছে এবং তারা মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। আঙ্কারা ফ্রি সিরিয়ান আর্মিকে সমর্থন দিচ্ছে এবং যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত কুর্দি ওয়াইপিজি যোদ্ধাদের বিরোধিতা করছে।

তুরস্কের সেনাবাহিনী উত্তর সিরিয়ার একটি অঞ্চলকে বিচ্ছিন্ন করে দিতে চাইছে। এটি ধরে নেয়া যায় যে, অটোমান সাম্রাজ্যের নতুন বিজয় হিসেবেই তারা এমনটি করতে চাচ্ছেন।

মার্ক স্লেবোদা বলেন, তুরস্ক তার আগের সব মিত্রদের সঙ্গে বৈরিতায় জড়িয়েছে। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ প্রতিবেশী বিভিন্ন দেশের সঙ্গে আঙ্কারার সম্পর্ক ভালো না।


মন্তব্য