kalerkantho


নিহতদের মধ্যে অন্তত ৯৯ জনই শিশু

সিরিয়ায় বৃষ্টির মতো বোমাবর্ষণে নিহত ৪৬২, যুদ্ধবিরতি পিছিয়েছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১১:২২



সিরিয়ায় বৃষ্টির মতো বোমাবর্ষণে নিহত ৪৬২, যুদ্ধবিরতি পিছিয়েছে

ছবি অনলাইন

সিরিয়ায় সরকারি বাহিনী বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত পূর্ব ঘৌটায় প্রচণ্ড বোমাবর্ষণ অব্যাহত রেখেছে সরকারি বাহিনী। এতে প্রায় এক সপ্তাহে নিহত হয়েছে ৪৬২ জন। তাদের মধ্যে অন্তত ৯৯ জনই শিশু। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো খবর দিয়েছে, বৃষ্টির মতো করে সেখানে বোমা পড়ছে এখনও।

এদিকে সে অঞ্চলে রক্তক্ষয় বন্ধ করতে যুদ্ধবিরতির জন্য জাতিসংঘে প্রস্তাব আনা হলেও তা অনিশ্চিত হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে এ বিষয়ে কোনো ঐকমত্য হয়নি রাশিয়ার ভেটো দেওয়ার কারণে। এরপর তা শুক্রবার ভোটাভুটির কথা থাকলেও পিছিয়ে যায়।

যুদ্ধবিরতি কার্যকরের প্রস্তাবে ভোটে দিয়েছে রাশিয়া। স্থানীয় সময় শুক্রবার নিরাপত্তা পরিষদে এ নিয়ে ভোটাভুটি হওয়ার কথা ছিল। সিরিয়া সরকার এজন্য নতুন একটি প্রস্তাব দিচ্ছে বলে জানিয়েছে।

সিরিয়ার পূর্ব ঘৌটায় প্রায় এক সপ্তাহের সহিসংতায় ৪৬২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো কয়েক সহস্রাধিক মানুষ। ২০১৩ সালের পর সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর এটি সর্বোচ্চ প্রাণঘাতী বিমান হামলা।

ভয়াবহ এ মানবিক বিপর্যয়ে ঘৌটায় ৩০ দিনের অস্ত্রবিরতির প্রস্তাব আনা হয়। অস্ত্রবিরতি নিয়ে বৃহস্পতিবারের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে কোনো ঐকমত্য হয়নি।

দেশটিতে মানবিক সহায়তা ও জরুরি ওষুধপত্র সরবরাহের জন্য বৃহস্পতিবার নিরাপত্তা পরিষদে প্রস্তাব তোলা হয়। নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য সুইডেন ও কুয়েত এ প্রস্তাব উত্থাপন করে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, সেই চুক্তির ব্যাপারে ঐকমত্য হয়নি। রাশিয়াই বাকিদের সঙ্গে এ সংক্রান্ত প্রস্তাবে ঐকমত্যে পৌঁছাতে পারেনি।

প্রস্তাবিত অস্ত্রবিরতির খসড়ায় বলা ছিল ৩০ দিনের জন্য যুদ্ধবিরতির। এছাড়া চুক্তির ৭২ ঘণ্টা থেকে এটি কার্যকর হওয়ার কথা ছিল। তবে তা আপাতত অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।


মন্তব্য