kalerkantho


রমজানে কাতারে পণ্যের দাম কমেছে ২০ শতাংশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ মে, ২০১৮ ১৬:২১



রমজানে কাতারে পণ্যের দাম কমেছে ২০ শতাংশ

রমজান এলে পণ্যের দাম বৃদ্ধি নয় বরং কমানোর প্রতিযোগিতাই যেন চোখে পড়ে আরব দেশগুলোতে। এ মাসটিতে ভোক্তাদের কিছুটা স্বস্তি দেওয়ার জন্য পণ্যের দাম কমানোর নির্দেশনা জারি করে দেশগুলোর সরকার। ব্যবসায়ীরাও পবিত্র মাস হিসেবে নির্দেশনা অকপটে মেনে নেয়। এবারের রমজানেও কাতারে খাদ্য ও খাদ্যবহির্ভূত মিলিয়ে পাঁচ শতাধিক পণ্যের দাম কমানোর ঘোষণা দিয়েছে কাতারের অর্থনীতি ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় (এমইসি)। যেকোনো সুপারশপ বা দোকানে এসব পণ্য সাধারণ মানুষ সরকার নির্ধারিত ছাড়কৃত দামে কিনতে পারবে। কাতারের নাগরিকসহ দেশি-বিদেশি সব শ্রেণির মানুষ এ সুবিধা পাবে।

রমজানের অত্যাবশ্যকীয় খাদ্যপণ্য দুধ, মুরগি, চাল, আটা, ময়দা, চিনি, ভোজ্য তেলসহ নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় সব পণ্যেই ১০ থেকে ২০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় থাকবে বলে ঘোষণা দিয়েছে এমইসি। এ ছাড় মিলবে রমজানের প্রথম দিন থেকে শেষ দিন পর্যন্ত। এ ক্ষেত্রে সহযোগিতা দেবে সব সুপারশপসহ খুচরা দোকানিরা। ভোক্তাদের ওপর বাড়তি চাপ যাতে না পড়ে সে লক্ষ্যে ‘আকলমিন আলওয়াজিব’ নামে এ অফার চালু করেছে কাতার সরকার।

পণ্যের হ্রাসকৃত দাম সব বড় বড় শপিং কমপ্লেক্সে ঝুলিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি সরকারি ওয়েবসাইট ও সামাজিক মাধ্যমেও তা দিয়ে দেওয়া হয়েছে। 

এমইসির ঘোষণায় আরো বলা হয়েছে, এ নির্দেশনার সামান্যতম লঙ্ঘন সহ্য করা হবে না। সব প্রতিষ্ঠানকে নির্ধারিত দামে পণ্য বিক্রি করতে হবে। যারা অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে ভোক্তাদের অনুরোধ করা হয়েছে নিয়মের কোনো ব্যত্যয় দেখলে সঙ্গে সঙ্গে রিপোর্ট করার জন্য। তাহলে তাত্ক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। একটি শপিং কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক জানান, পণ্যের নতুন তালিকা অনুযায়ী ৫০৯টি পণ্যের দাম ১০ থেকে ২০ শতাংশ পর্যন্ত কমেছে।

এ ছাড়া রমজান মাস উপলক্ষে দেশের নাগরিকদের মাসিক রেশন হিসেবে অতিরিক্ত ৫০ কেজি আটা সরবরাহ করারও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি রেশনের মধ্যে দুধ ও চিনির পরিমাণ বাড়ানো হবে। প্রসঙ্গত, গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে কাতারে পবিত্র রমজান মাস শুরু হয়েছে।
সূত্র : পেনিনসুলা
     
 


    

 

 


মন্তব্য