kalerkantho


আইএস মুক্ত মসুলেও লাশের মিছিল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মে, ২০১৮ ১৮:১৫



আইএস মুক্ত মসুলেও লাশের মিছিল

ইরাকের মসুলে আইএস মুক্তির দীর্ঘদিন পরেও সন্ধান মিলছে হাজার হাজার মরদেহের। এ পর্যন্ত আড়াই হাজারের বেশি বেসামরিক মানুষের মরদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় প্রশাসন। রয়েছে অসংখ্য আইএস জঙ্গির মরদেহ। এমন পরিস্থিতিতে, দূষণের কারণে ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে শহরটির গণস্বাস্থ্য।

মসুল আইএস মুক্ত হয়েছে প্রায় ১০ মাস। এখনো শহরের বাতাসে মৃত্যুর গন্ধ। টাইগ্রিস নদীর পশ্চিম পাড় থেকে প্রায়ই সন্ধান মিলছে শ শ মানুষের দেহাবশেষ।

দুদিন আগে দেড় শতাধিক মরদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় প্রশাসন। নিনেভ সিভিল ডিফেন্স বলছে, আর এ পর্যন্ত তাদের হাতে উদ্ধার হয়েছে দুই হাজার ছয়শর বেশি বেসামরিক মানুষের মরদেহ। হিসেব নেই আইএস জঙ্গিদের। 

নিনেভ সিভিল ডিফেন্সের প্রধান মেজর সাদ হুসেইন বলেন, ‘বেশিরভাগ মরদেহ আইএস যোদ্ধা ও তাদের পরিবারের সদস্যদের। তবে তাদের সঠিক হিসেব নেই। জঙ্গিদের হাতে নিহত বেসামরিক নাগরিকের দেহবাশেষও পাওয়া যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে, নানা রোগব্যাধি ছড়ানোর ঝুঁকিতে রয়েছে স্থানীয়রা’।

শহরের প্রতি একরে জমে আছে তিন হাজার টনের বেশি আবর্জনা ও ধ্বংসস্তূপ। এসবের নীচে চাপা পড়ে আছে আরও মরদেহ। তবে অবিস্ফোরিত বোমার ফাঁদ হিসেবে পরিচিত ধ্বংসস্তূপ সরাতে হিমশিম খাচ্ছে প্রশাসন।

তিনি আরো বলেন, ‘অভিযোগ পেলেই আমরা আসি। এখনো বিশাল এলাকা জুড়ে অবিস্ফোরিত বোমা ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। এগুলোই আমাদের কাজের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ’।

গত বছরের ডিসেম্বরে ইরাককে আইএস মুক্ত ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবাদি। তবে গত কয়েক বছরে জঙ্গিদের তাণ্ডবে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে দেশটির উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলের বহু এলাকা। সরকারের হিসেবে সারা দেশ পুনর্গঠনে দরকার ১০ হাজার কোটি ডলার।


মন্তব্য