kalerkantho


১০০০ রিসোর্স টিচার নিয়োগ

অস্থায়ী ভিত্তিতে রিসোর্স টিচার (আরটি) চেয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর। অনলাইনে আবেদনের শেষ সময় ২১ নভেম্বর বিকেল ৫টা। বিস্তারিত জানাচ্ছেন রায়হান রহমান

১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



১০০০ রিসোর্স টিচার নিয়োগ

ছবি : শুভ্র কান্তি দাশ

সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রগ্রামের (সেসিপ) আওতায় রিসোর্স টিচার (আরটি) পদে এক হাজার লোক চেয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর। দেশের ১৪২টি উপজেলায় মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগ দেওয়া হবে।

ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণিতে পাঠদান করবেন এসব শিক্ষক। এক বছরের জন্য নিয়োগ দেওয়া হলেও বাড়তে পারে প্রগ্রামের মেয়াদ। বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে http://sesip.gov.bd/wp-content/uploads/ 2017/11/RT-recruitment.pdf  লিংকে।

 

আবেদনের যোগ্যতা

রিসোর্স টিচার (আরটি) পদে আবেদনের জন্য যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণিত, বিজ্ঞান বা ইংরেজিতে স্নাতক, স্নাতক (সম্মান) অথবা স্নাতকোত্তর হতে হবে। স্নাতকের বেলায় গণিত ও বিজ্ঞানে কমপক্ষে ৫০% নম্বর ও ইংরেজিতে ৪৫% নম্বর থাকতে হবে। বিএড, ডিপ-ইন-এড, এমএড ডিগ্রি থাকলে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। ১ জুলাই ২০১৭ তারিখে প্রার্থীর বয়সসীমা অনূর্ধ্ব ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩২ বছর। অগ্রাধিকার পাবেন মহিলা ও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত নির্বাচিত উপজেলা ও সংশ্লিষ্ট জেলার প্রার্থীরা।

নির্বাচিত উপজেলার নাম পাওয়া যাবে বিজ্ঞপ্তি ও ওয়েবসাইটে (www.sesip.gov.bd)। এনটিআরসিএ থেকে নিবন্ধিত না হলেও সদ্য পাস করা প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। চাকরিরতদের আবেদন করতে হবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে।

 

আবেদনের নিয়ম

অনলাইনে শুরু হয়ে গেছে আবেদন প্রক্রিয়া। আবেদন করা যাবে ২১ নভেম্বর বিকেল ৫টা পর্যন্ত। সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রগ্রামের (সেসিপ) ওয়েবসাইটে (www.sesip.gov.bd) পাওয়া যাবে আবেদন ফরম। ফরম পূরণ করতে হবে ওয়েবসাইটে দেওয়া নির্দেশনা মেনে। ফরম সাবমিট করার আগে ভুলত্রুটি আছে কি না দেখে নিতে হবে। ফরমের নির্ধারিত স্থানে আপলোড করতে হবে জেপিজি বা পিএনজি ফরমেটের ছবি (৩০০ বাই ৩০০ পিক্সেল) ও স্বাক্ষর (৩০০ বাই ৮০ পিক্সেল)। পিডিএফ ফরমেটে আপলোড করতে হবে এসএসসির সনদ ও স্নাতক বা স্নাতক (সম্মান) পর্যায়ের মার্কশিট। ফাইলের সাইজ এক এমবির বেশি হওয়া যাবে না। ডিক্লারেশন অংশে ফরমে দেওয়া সব ধরনের তথ্য সঠিক ও সত্য বলে ঘোষণা দিতে হবে। আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হলে ছবি ও স্বাক্ষরযুক্ত অ্যাপ্লিক্যান্টস কপি ও কনফার্মেশন এসএমএস পাবে আবেদনকারী। অ্যাপ্লিক্যান্টস কপি প্রিন্ট বা ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করতে হবে।

 

যা যা লাগবে

সাক্ষাৎকারের সময় সব শিক্ষা সনদের মূল অথবা সাময়িক কপি ও মার্কশিট জমা দিতে হবে। কোটায় আবেদন করলে জমা দিতে হবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে স্বাক্ষরিত ও প্রতিস্বাক্ষরিত সনদের মূল কপি। লাগবে নাগরিকত্ব সনদের মূল কপি, কমপক্ষে পাঁচ বছরের পরিচিত এবং ন্যূনতম অষ্টম গ্রেডের সরকারি কর্মকর্তা অথবা নিজ এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান/মেয়র, কমিশনার/কাউন্সিলরের থেকে পাওয়া চারিত্রিক সনদ। সংশ্লিষ্ট জেলার বাইরের প্রার্থীও আবেদন করতে পারবে। তবে কমপক্ষে এক বছর নির্বাচিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করবেন এই মর্মে ৩০০ টাকার স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা দিতে হবে সাক্ষাৎকারের সময়। অনলাইনে দেওয়া তথ্যের সঙ্গে সাক্ষাৎকারের সময় আনা কাগজপত্রের তথ্যে মিল না থাকলে প্রার্থিতা বাতিল হয়ে যাবে। ৎা

 

পরীক্ষার ধরন ও প্রস্তুতি 

সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রগ্রামের (সেসিপ) প্রজেক্ট অফিসার (প্রগ্রাম) মো. আলমগীর জানান, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা হবে। ৭০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে এমসিকিউ আকারে। প্রশ্ন করা হবে বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান থেকে। প্রস্তুতির জন্য পড়তে হবে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পাঠ্য বই। উত্তীর্ণ হলে ডাকা হবে মৌখিক পরীক্ষায়। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরা নিয়োগ পাবেন। বাড়তে পারে প্রগ্রামের মেয়াদ। মেয়াদ বাড়লে নতুন করে পরীক্ষা নেওয়ার মাধ্যমে নিয়োগ দেওয়া হবে।

 

বাংলা

ব্যাকরণ থেকে সাধারণত শুদ্ধ বানান, এককথায় প্রকাশ, বাগধারা, ণত্ব-বিধান, ষত্ব-বিধান, সাহিত্য অংশে বিভিন্ন গল্প, উপন্যাস, নাটক, কবিতা এবং লেখকের জীবনী থেকে প্রশ্ন আসে। আলোচিত উপন্যাস, গল্প, কবিতা ইত্যাদি বিষয়ের ওপর রাখতে হবে বিস্তর জ্ঞান।

 

গণিত

সাধারণত গণিতে বেশি প্রশ্ন আসে না। জানতে হবে সুদকষা, ঐকিক নিয়ম, অনুপাত, সমানুপাত, শতকরা, লসাগু-গসাগু, লাভ-ক্ষতি, ভগ্নাংশ, বীজগণিতীয় সূত্র।

 

ইংরেজি

ইংরেজি থেকে বেশি প্রশ্ন আসবে গ্রামার অংশে। Tense, Parts of speech, Verb, Translation, Number, Gender, Narration, Voice Change, Correct Form of Verbs, Pronunciation, Synonym, Antonym, Transformation of Sentence, Appropriate Word, Idioms and Phrases থেকে প্রশ্ন আসে।

 

সাধারণ জ্ঞান

সাধারণ জ্ঞান থেকে বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে প্রশ্ন আসে। সমসাময়িক বিষয়েও প্রশ্ন আসে। চোখ রাখতে হবে বর্তমান সময়ের আলোচিত বিষয় ও দেশ-বিদেশের হালচাল সম্পর্কে। ইতিহাস ও ঐতিহ্য থেকেও থাকতে পারে প্রশ্ন। নিয়মিত পড়তে হবে দৈনিক পত্রপত্রিকা ও কারেন্ট অ্যাফেয়ার্সবিষয়ক মাসিক সাময়িকী।

 

মৌখিক পরীক্ষা

মৌখিক পরীক্ষায় বরাদ্দ থাকবে ৩০ নম্বর। মো. আলমগীর বলেন, মৌখিক পরীক্ষায় প্রশ্নের কোনো ধরাবাঁধা নিয়ম নেই। এটা নির্ভর করে প্রশ্নকর্তার ওপর। মাথায় রাখতে হবে, প্রশ্ন হতে পারে যেকোনো বিষয়েই। দেখা হবে প্রার্থীর বাচনভঙ্গি, ব্যক্তিত্ব ও উপস্থিত বুদ্ধিমত্তা।

আরটি পদে যাঁদের চার-পাঁচ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে, তাঁদের জন্য বোনাস নম্বর হিসেবে থাকবে ১০। ভাইভা বোর্ডে প্রশ্নকর্তাদের দিকে তাকিয়ে হাসিমুখে উত্তর দিতে হবে।

 

বেতন

সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রগ্রামের (সেসিপ) নিয়ম অনুসারে রিসোর্স টিচার (আরটি) পদে নিয়োগপ্রাপ্তরা সর্বসাকল্যে ২০৩০০ টাকা বেতন পাবেন।

 

যোগাযোগ

পরীক্ষাসংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য প্রার্থীর মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। জানা যাবে সেসিপের ওয়েবসাইট (www.sesip.gov.bd) থেকেও। সরাসরি যোগাযোগ করা যাবে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর, দ্বিতীয় ব্লক, ১৬ আবদুল গনি রোড, ঢাকা—১০০০ ঠিকানায়।


মন্তব্য