kalerkantho

সিডরের কথা

এম এ মোতালেব, মোংলা   

১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



সিডরের কথা

সিডর সরকার

২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড়ের রাতে জন্ম হয়েছিল। তাই নাম সিডর সরকার।

তার বয়স এখন ১০ বছর। বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার চিলা গ্রামে বেসরকারি সংগঠন পরিচালিত দিশারী বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ে। গতকাল তার বাড়িতে গেলে সে বলে, ‘আমি কম্পিউটার শিখতে চাই। ’

তার বাবা জর্জি সরকার ও মা সাথী সরকার। ঝড়ের রাতে সেন্ট মেরিস গির্জায় তার জন্ম। এ কারণে দেশি-বিদেশি গণমাধ্যমে তাকে নিয়ে বহু প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে। অনেকে দরিদ্র পরিবারটিকে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে। সম্প্রতি সিডরের দাদা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তাঁর চিকিৎসা করাতে গিয়ে পরিবারটি নিঃস্ব হয়ে গেছে।

ভিটা থাকলেও ঘর নেই। অন্যের ঘরে সে দাদির সঙ্গে থাকে। তার মা ঢাকায় গৃহকর্মীর কাজ করেন।

বাবা জর্জি সরকার বলেন, ‘আমার তো ইচ্ছা হয় একমাত্র সন্তানকে ভালো স্কুলে পড়াতে, প্রাইভেট শিক্ষক দিতে। কিন্তু অভাবের কারণে পারি না। ’

সিডর সরকার বলে, ‘পড়াশোনা আমার খুব ভালো লাগে। কম্পিউটার শিখতে চাই। লেখাপড়া শিখে বড় চাকরি করব, বাবা-দাদিকে নিয়ে ঢাকায় থাকব। আমার বন্ধুদেরও নিয়ে যাব, ওদের সঙ্গে খেলা করি তো, তাই। ’

দিশারী বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা সুমা সরকার বলেন, ‘সিডর অসম্ভব মেধাবী, কিন্তু খুব দুরন্ত। কম্পিউটার শেখার ওপর খুব আগ্রহ ওর। ওর মতো অনেকেই এখন কম্পিউটার শিখছে। কিন্তু ও পারছে না অর্থের অভাবে। ’

মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রবিউল ইসলাম বলেন, ‘সিডরের পরিবার দারিদ্র্যের কারণে যে আর্থিক সংকটের মধ্যে দিনাতিপাত করছে, তা আমি জানতাম না। ’


মন্তব্য