kalerkantho


ড্রিমার্স প্রকল্প বাতিল

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আরো চার রাজ্যে মামলা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন তরুণ অবৈধ অভিবাসীদের ড্রিমার্স প্রকল্প বাতিলের পর আরো চারটি রাজ্য এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। ক্যালিফোর্নিয়া, মেইন, মেরিল্যান্ড ও মিনেসোটা রাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেলরা যৌথভাবে উত্তর ক্যালিফোর্নিয়ার ফেডারেল আদালতে গত সোমবার এ মামলা দায়ের করেন।

গত সপ্তাহেও ১৫টি রাজ্য এবং ডিস্ট্রিক্ট অব কলাম্বিয়া জোটবদ্ধভাবে একই ধরনের মামলা করে।

যুক্তরাষ্ট্রে অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস গত সপ্তাহে অনিবন্ধিত তরুণ অভিবাসীদের সুরক্ষা দিতে ডেফারড অ্যাকশন ফর চাইল্ডহুড অ্যারাইভালস (ডাকা) নামের প্রকল্পটি বাতিলের ঘোষণা দেন। পাঁচ বছর আগে ওবামার চালু করা এ প্রকল্প বাতিল ঘোষণার মধ্য দিয়ে সত্যিকার অর্থেই স্বপ্নভঙ্গ হতে চলেছে ড্রিমারস নামে পরিচিত তরুণ অনিবন্ধিত অভিবাসীদের। প্রকল্পটির আওতায় সুরক্ষা পেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া অনিবন্ধিত প্রায় আট লাখ তরুণ অভিবাসী, যারা কৈশোরে মা-বাবার সঙ্গে অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করেছিল। ট্রাম্পের পূর্বসূরি বারাক ওবামা আইনের ফাঁক গলে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া তরুণদের বিতাড়নের হাত থেকে রেহাই দিয়ে দেশটিতে বসবাস, পড়াশোনা ও ভবিষ্যতে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছিলেন ডাকা কর্মসূচির মাধ্যমে। ওই সব তরুণই ‘ড্রিমারস’ নামে পরিচিত। এদের বেশির ভাগই লাতিন আমেরিকার দেশগুলোর।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নির্বাচনের আগে থেকেই এ প্রকল্পের বিরোধিতা করে আসছিলেন। নির্বাচিত হওয়ামাত্রই প্রকল্পটি বাতিল করার পরিকল্পনাও জানিয়েছিলেন তিনি।

পরবর্তী সময়ে কংগ্রেসের স্পিকার পল রায়ানের পক্ষ থেকে প্রেসিডেন্টের প্রতি ড্রিমারদের ছাড় দেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছিল। ডেমোক্র্যাটরাও এই প্রকল্প বাতিলের তীব্র বিরোধী।

ক্যালিফোর্নিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল জেভিয়ার বেসেরা মামলা দায়ের প্রসঙ্গে বলেন, ‘প্রতি চারজন ড্রিমার্সের মধ্যে একজন মনে করে, ক্যালিফোর্নিয়াই তার দেশ। এতে বিস্ময়ের কিছু নেই, কারণ বিশ্বের ষষ্ঠ বৃহত্তম অর্থনৈতিক শক্তি এ রাজ্য। ’

সেন্টার ফর আমেরিকান প্রগ্রেসের গত জানুয়ারিতে প্রকাশিত এক জরিপে বলা হয়, ডাকার ইতি ঘটলে প্রতিবছর ক্যালিফোর্নিয়ার আর্থিক ক্ষতি হবে ১১ দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলার, যা অন্য যেকোনো রাজ্যের চেয়ে বেশি।   সূত্র : এএফপি।  


মন্তব্য