kalerkantho


ভারতে চার বিচারপতির ‘বিদ্রোহ’

ভালো চোখে দেখছে না বার অ্যাসোসিয়েশন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ক্ষোভ থাকলেও দেশের প্রধান বিচারপতির কাজকর্ম নিয়ে তাঁদের অসন্তোষ সংবাদ সম্মেলনে উগরে দিয়ে চার প্রবীণ বিচারপতি সঠিক কাজ করেননি বলে মনে করছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন। তাদের মতে, বিষয়টি নিয়ে শীর্ষ আদালতের বিচারপতিদের বৈঠকে আলোচনা হলেই ভালো হতো।

বিষয়টির ফয়সালা হবে কিভাবে, তা নিয়ে সবিস্তার আলোচনা করতে গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় জরুরি বৈঠকে বসছে বার অ্যাসোসিয়েশন। এরপর সাংবাদিকদেরও মুখোমুখি হবে অ্যাসোসিয়েশন। সেখানে অ্যাসোসিয়েশনের সিদ্ধান্ত জানানোর কথা।

বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বিকাশ সিংহ বলেছেন, তাঁরা যখন সংবাদ সম্মেলনই ডাকলেন, তখন তাঁদের এমন কিছু বলা উচিত ছিল, যার বাস্তব ভিত্তি রয়েছে। এটাই প্রমাণ করে, ওই সংবাদ সম্মেলন আগে থেকে ভেবেচিন্তে করা হয়নি। তাঁরা বিচারপ্রক্রিয়া নিয়ে কোনো অভিযোগ করেননি।

যেহেতু সংবাদ সম্মেলনে প্রধান বিচারপতির কাজকর্মের পদ্ধতি নিয়ে অভিযোগ করেছেন শীর্ষ আদালতের চার প্রবীণ বিচারপতি, তাই বার অ্যাসোসিয়েশন মনে করছে, এ ব্যাপারে যা করণীয় তা প্রধান বিচারপতিরই করা উচিত। তবে অ্যাসোসিয়েশনও তার সিদ্ধান্ত জানাতে দেরি করবে না।

শুক্রবার সকালে নিজ বাড়ির লনে সাংবাদিকদের ডেকে সুপ্রিম কোর্টের প্রবীণ বিচারপতি জে চেলামেশ্বর ও তাঁর তিন সহকর্মী বিচারপতি কুরিয়ান জোসেফ, রঞ্জন গগৈ ও মদন লোকুর প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের কাজকর্মের পদ্ধতি নিয়ে বেশ কিছু প্রশ্ন তোলেন। বিচারপতি জে চেলামেশ্বর বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টের কাজকর্ম ঠিকমতো চলছে না। প্রধান বিচারপতির কাজকর্মে স্বচ্ছতার অভাব থেকে যাচ্ছে। বেছে বেছে বিচারপতিদের মামলা দেওয়া হয়েছে। সে ক্ষেত্রে কোনো সিনিয়রিটির বাছবিচার করা হচ্ছে না। এমনকি অনেক গুরুত্বপূর্ণ মামলাও দেওয়া হচ্ছে জুনিয়র বিচারপতিদের।’

চার প্রবীণ বিচারপতির অভিযোগ, প্রধান বিচারপতিকে চিঠি লিখে সব কটি বিষয় জানানো সত্ত্বেও তাঁর সঙ্গে আলাদাভাবে আলোচনায় বসার পরও সমস্যা মেটেনি। কোনো ঐকমত্যে পৌঁছনো সম্ভব হয়নি। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।



মন্তব্য