kalerkantho


উন কথা রাখলে তবেই আলোচনা : যুক্তরাষ্ট্র

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



উত্তর কোরিয়া পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের অঙ্গীকার পূরণ করলে তবেই তাদের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের আলোচনা হবে, গতকাল সোমবার এমনটা জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। তবে সেই অঙ্গীকার পূরণে ‘সত্যিকার অগ্রগতি’ না হওয়া পর্যন্ত উত্তর কোরিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এইচ আর ম্যাকমাস্টার। যুক্তরাষ্ট-উত্তর কোরিয়া বৈঠক হলে সেটা ‘নির্ঝঞ্ঝাট’ হবে বলে আশা করছে চীন।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনের অংশ হিসেবে গতকাল বলেন, ‘(ওয়াশিংটন-পিয়ংইয়ং) বৈঠক হওয়ার ব্যাপারে আমরা পুরোমাত্রায় আশাবাদী। প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে এবং আমরা তাতে সম্মতি দিয়েছি। উত্তর কোরিয়া বেশ কিছু অঙ্গীকার করেছে এবং আমরা আশা করি, তারা সেগুলো পূরণ করবে। তেমনটা হলে পরিকল্পনা অনুযায়ী বৈঠক হবে।’

একই দিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ম্যাকমাস্টার জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে নিউ ইয়র্কে রুদ্ধদ্বার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ সুযোগ নিয়ে আমরা যে আশাবাদী, সে ব্যাপারে আমরা সবাই একমত। কিন্তু পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ অঙ্গীকারের সত্যিকার অগ্রগতি এবং কথার সঙ্গে বাস্তবের মিল না দেখা পর্যন্ত সর্বোচ্চ চাপ অব্যাহত রাখার ব্যাপারে আমরা দৃঢ়সংকল্প।’

এদিকে চীনের প্রেসিডেন্ট শি চিনপিং গতকাল রাজধানী পেইচিংয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা চুং ইউই ইয়ংয়ের সঙ্গে বৈঠকে বলেন, ‘আমরা নির্ঝঞ্ঝাট ডিপিআরকে (উত্তর কোরিয়া)-আরওকে (দক্ষিণ কোরিয়া) বৈঠক এবং ডিপিআরকে-যুক্তরাষ্ট্র আলোচনার আশা করছি।’

সিউলের নিরাপত্তা উপদেষ্টা চুং গত সপ্তাহে প্রথমে উত্তর কোরিয়া সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন এবং পরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করেন। উন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা চান এবং প্রয়োজনে তিনি নিজেদের পরমাণু কর্মসূচি বাতিল করতে রাজি—চুং এমন বার্তা নিয়ে ট্রাম্পের কাছে গেলে এ প্রস্তাবে ট্রাম্প সম্মতি দেন। এ ছাড়া আগামী মে মাসের মধ্যে উনের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন বলে জানান ট্রাম্প। পিয়ংইয়ংয়ের পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে ট্রাম্প-উন মারাত্মক বাগিবতণ্ডা থাকলেও এবার তাঁরা আলোচনার কথা বলছেন। এ ব্যাপারে ট্রাম্পের সরাসরি বক্তব্য পাওয়া গেছে, তবে উনের প্রত্যক্ষ বিবৃতি পাওয়া যায়নি। উনের প্রস্তাব সংবাদমাধ্যমে আসে দক্ষিণ কোরিয়ার নিরাপত্তা উপদেষ্টা চুংয়ের মাধ্যমে। সূত্র : এএফপি, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

 


মন্তব্য