kalerkantho


ট্রাম্পকে রাজি করিয়েছেন ম্যাখোঁ!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



সিরিয়ায় মার্কিন সেনাদের অবস্থান দীর্ঘায়িত করতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বুঝিয়ে-শুনিয়ে রাজি করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ। এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে খোদ ম্যাখোঁ এ দাবি করলেও হোয়াইট হাউস দিয়েছে ভিন্ন তথ্য। তারা জানিয়েছে, ‘যত দ্রুত সম্ভব’ সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনাদের বাড়ি ফিরিয়ে আনা হবে।

সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র তৈরির স্থাপনায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলার এক দিন পর দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে ফরাসি প্রেসিডেন্ট দাবি করেন, তাঁদের এই হামলা বৈধ ছিল। একই সঙ্গে সিরিয়ায় সাত বছর ধরে চলা গৃহযুদ্ধের একটা রাজনৈতিক সমাধান টানতে কূটনৈতিক সমাধানের পথে এগোনোর জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

৪০ বছর বয়সী ম্যাখোঁ ক্ষমতায় আসার পর এটিই ছিল তাঁর প্রথম সামরিক অভিযান। এই হামলাকেই সিরিয়ায় পশ্চিমা বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী আঘাত হিসেবে অভিহিত করা হচ্ছে। সাক্ষাৎকারে ম্যাখোঁ বলেন, ‘আমরা প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ প্রশাসনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করিনি।’ তবে বেসামরিক জনগণের ওপর রাসায়ক অস্ত্রের প্রয়োগ হলে শাস্তি পেতে হবে—এমন নজির স্থাপনের লক্ষ্যও তাঁর ছিল বলে জানান। এ ক্ষেত্রে ‘অভিযান আন্তর্জাতিকভাবে বৈধ’ বলে তিনি দাবি করেন। তিনি আরো বলেন, ‘১০ দিন আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছিলেন সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে যুক্তরাষ্ট্র। আমি আশ্বস্ত করতে চাই যে আমরা তাঁকে সিরিয়ায় দীর্ঘ মেয়াদে সেনা রাখার ব্যাপারে সম্মত করতে পেরেছি।’ শুধু তা-ই নয়, ম্যাখোঁর দাবি, তিনি সামরিক অভিযান সীমিত রাখার ব্যাপারেও ট্রাম্পকে রাজি করিয়েছেন।

যদিও হোয়াইট হাউসের তরফ থেকে উল্টো তথ্য দেওয়া হয়েছে ম্যাখোঁর এই সাক্ষাৎকারের কয়েক ঘণ্টা পরই। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স বলেন, ‘সিরিয়া প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ইচ্ছায় পরিবর্তন আসেনি। প্রেসিডেন্ট স্পষ্ট করেই জানিয়েছেন, সিরিয়া থেকে যত দ্রুত সম্ভব মার্কিন সেনারা বাড়ি ফিরবে।’ সূত্র : বিবিসি।  

 


মন্তব্য