kalerkantho


প্রিন্স হ্যারির বিয়ের খরচ

শুধু জনগণের পকেট থেকে যাবে ৩৪৩ কোটি টাকা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ মে, ২০১৮ ০০:০০



শুধু জনগণের পকেট থেকে যাবে ৩৪৩ কোটি টাকা

বছরের সেরা বিয়েটির ক্ষণ গণনায় দিন থেকে ঘণ্টায় নেমে এসেছে। আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর আগামীকাল শনিবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে ব্রিটিশ প্রিন্স হ্যারি ও মার্কিন অভিনেত্রী ও মানবাধিকারকর্মী মেগান মার্কেলের বিয়ে। কত টাকা খরচ হচ্ছে এ বিয়েতে! দুনিয়ার অন্যতম প্রভাবশালী রাজপরিবারটির রাজপুত্রের বিয়ের খরচ এক কৌতূহলের বিষয়ই বটে। এক হিসাবে জানা গেছে, শেষ পর্যন্ত খরচ যেখানে গিয়েই ঠেকুক না কেন, এ বিয়ের জন্য শুধু ব্রিটেনের জনগণের পকেট থেকেই ব্যয় করতে হবে ৩৪৩ কোটি ৪৬ লাখ ৫৯ হাজার ১৪৬ টাকা।

আগামীকাল লন্ডন থেকে ২০ মাইল দূরে উইন্ডসর প্রাসাদের সেন্ট জর্জেস চ্যাপেলে হবে প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেলের বিয়ে অনুষ্ঠান। বিয়ে পরিকল্পনা সেবা প্রতিষ্ঠান ব্রাইডবুকের হিসাবে মতে, বিয়ের মূল অনুষ্ঠানের জন্য ব্যয় হবে ৩২ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ দাঁড়ায় ৩৬৬ কোটি ৩১ লাখ ২৪ হাজার ৮৮৮ টাকা। বিয়ে অনুষ্ঠানের নিরাপত্তার জন্য সম্ভাব্য খরচ হবে ৩০ মিলিয়ন পাউন্ড, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় দাঁড়ায় ৩৪৩ কোটি ৪৬ লাখ ৫৯ হাজার ১৪৬ টাকা। আর অন্যান্য খরচ হবে ২৪ মিলিয়ন পাউন্ড, বাংলাদেশি মুদ্রায় দাঁড়ায় ২৭৪ কোটি ৬৬ লাখ ২৩ হাজার ৬০৪ টাকা। এর মধ্যে রাজপরিবারের সদস্যদের নিজস্ব তহবিল থেকে বিয়ের যাবতীয় খরচ জোগানো হবে। শুধু নিরাপত্তার খরচ দেওয়া হবে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে।

প্রেস অ্যাসোসিয়েশনের হিসাব অনুযায়ী, ২০১১ সালে প্রিন্স হ্যারির বড় ভাই প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিডলটনের বিয়েতে পুলিশিংয়ের জন্য ব্যয় হয়েছিল ৬.৩৫ মিলিয়ন পাউন্ড। এর মধ্যে পুলিশের ওভারটাইম বিল ছিল ২.৮ মিলিয়ন পাউন্ড। ওই বিয়েতে মোটামুটি পাঁচ হাজার অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল। পরে তথ্য স্বাধীনতার  (এফওআই) অনুরোধে জানা গিয়েছিল, ওই বিয়েতে লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশের ব্যায় হয়েছিল প্রায় ৭.২ মিলিয়ন পাউন্ড। তবে প্রকৃতপক্ষে ওই বিয়েতে সার্বিক নিরাপত্তা ব্যয় হয়েছিল ১০ মিলিয়ন থেকে ২০ মিলিয়ন পাউন্ডে। প্রসঙ্গত, গতকালের অনলাইন কারেন্সির রেট অনুযায়ী ব্রিটিশ এক পাউন্ড সমপরিমাণ বাংলাদেশি টাকায় ১১৪ টাকা এবং এক মিলিয়ন পাউন্ড সমান ১১ কোটি সাড়ে ৪৩ লাখ টাকা।

ব্রাইডবুকের তথ্য অনুযায়ী, যদিও এবারের বিয়েটি মধ্য লন্ডনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে না, তবু নিরাপত্তা খরচ বেশি হচ্ছে মূলত যুক্তরাজ্যে উচ্চপর্যায়ের নিরাপত্তা হুমকি জারি থাকার কারণে। বিশেষ গত ১৮ মাসে ধারাবাহিক সন্ত্রাসী হামলার কারণে এই হুমকি তৈরি হয়েছে। এ ছাড়া প্রিন্স হ্যারি ব্রিটিশ সামরিক বাহিনীর সঙ্গে সম্পর্কিত হওয়ার কারণে এই তাঁর নিরাপত্তা ঝুঁকি আরো বেড়েছে। আরো একটি কারণে প্রিন্স হ্যারির বিয়ের নিরাপত্তা খরচ বেশি হচ্ছে। সেটি হচ্ছে তাঁর বিয়েতে দুই হাজারের বেশি অতিথিকে নিমন্ত্রণ করা হয়েছে।

এই বিয়ের নিরাপত্তা খরচ নিয়ে এত আলোচনা কারণ এই বিলটি দিতে হবে ব্রিটেনের করদাতা তথা সব ধরনের নাগরিককে। রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকেই তা মেটানো হবে। এ জন্য ব্রিটেনের ট্যাক্সপেয়ার্স অ্যালায়েন্সের নীতি বিশ্লেষক ডানকান সিম্পসন বলেন, সেদিন উইন্ডসরে বর-কনে ও অন্যদের নিরাপত্তার খরচ যতটুকু কম রাখা যায়, এর সর্বোত্তম চেষ্টা করা উচিত। সূত্র : দি ইনডিপেনডেন্ট।

 


মন্তব্য