kalerkantho


বিশ্ব-কাঁপানো বিশ্বকাপ ফুটবল

সর্বত্র ছড়িয়ে যাক মানবিক ভ্রাতৃত্ববোধ

১৪ জুন, ২০১৮ ০০:০০



বিশ্বকাপ ফুটবলের পর্দা উঠছে আজ। ৩২টি দলের লড়াই শুরু হচ্ছে রাশিয়ায়। ১৯৩০ সালে ১৩টি দল নিয়ে যে বিশ্বকাপ ফুটবল প্রতিযোগিতার শুরু হয়েছিল, আজ সেই প্রতিযোগিতার ২১তম আসর বসছে। মাঝখানে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে ১৯৪২ ও ১৯৪৬ সালে বিশ্বকাপ ফুটবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হতে পারেনি। এবার খেলা হবে রাশিয়ায়, তার রেশ এসে পড়েছে বাংলাদেশেও। রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে বাড়িতে বাড়িতে উড়ছে অনেক দেশের পতাকা। বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন দলের তারকা খেলোয়াড়দের নম্বর সাঁটা জার্সি। অবশ্যই এ তালিকায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনাই শীর্ষে। কারণ বাংলাদেশে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার সমর্থকই বেশি। আজ থেকে যে মহোৎসব শুরু হচ্ছে, তা চলবে এক মাস। এই এক মাস ফুটবলপ্রেমীরা মেতে থাকবেন ফুটবল নিয়ে। কার ভাগ্যে জুটছে গোল্ডেন বুট, কে পাবেন গোল্ডেন বল, কোন দল দখলে নেবে ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ—এ নিয়ে চায়ের কাপে উঠবে ঝড়। প্রিয় দলের জয়ে ও প্রিয় খেলোয়াড়ের উজ্জ্বল পারফরম্যান্সে যেমন সমর্থকদের মুখ উজ্জ্বল হবে, তেমনি প্রিয় দলের পরাজয়ে বিমর্ষ হবে দর্শক।

অনেক অঘটনের সাক্ষী রাশিয়া বিশ্বকাপ। আর্জেন্টিনা ছিটকে যেতে যেতে শেষ মুহূর্তে কোয়ালিফাই করেছে। শেষ রক্ষা হয়নি চারবারের বিশ্বকাপ জয়ী ইতালির। ইউরোপ থেকে বাদ পড়া আরেকটি বড় দল নেদারল্যান্ডস তিনবারের বিশ্বকাপ ফাইনালিস্ট। কোয়ালিফাই করতে পারেনি আফ্রিকান চ্যাম্পিয়ন ক্যামেরুন। ২০১৫ ও ২০১৬ সালের কোপা আমেরিকা জেতা দল চিলিও থাকছে না রাশিয়ার বিশ্বকাপে। কোয়ালিফাই করতে পারেনি আফ্রিকার আরেক ফুটবল জায়ান্ট আইভরি কোস্ট, যারা ২০০৬ সাল থেকে সব বিশ্বকাপে খেলেছে। আফ্রিকার যে দেশটি ২০১৪ সালে ব্রাজিল বিশ্বকাপে খুবই ভালো ফুটবল খেলেছে—সেই ঘানাও এবার অনুপস্থিত রাশিয়ায়। এশিয়া থেকে সৌদি আরব এবং ইরান কোয়ালিফাই করলেও চীন ব্যর্থ হয়েছে। একইভাবে এবারের আসরে আগের আসরের অনেক উজ্জ্বল খেলোয়াড়ের দেখা মিলবে না। আবার অনেক নতুন তারকার জন্ম দেবে এবারের বিশ্বকাপ। আজ থেকে একটি মাস প্রিয় ফুটবলারদের নিয়ে মুখে মুখে ফেরা নানা প্রশ্নের জবাব খুঁজবেন ভক্তরা। আর্জেন্টিনার ভক্তরা যেমন তাকিয়ে আছেন মেসির দিকে, তেমনি ব্রাজিলভক্তরাও তো তাকিয়ে আছেন নেইমারের দিকে। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো কি নামের প্রতি সুবিচার করতে পারবেন? কে দৃষ্টি কাড়বেন মধ্য মাঠে, কে এবার রক্ষণভাগের হিরো, কে হবেন এবারের বিশ্বকাপের আলোচিত গোলরক্ষক? নিখুঁত গেম প্ল্যান ছাড়া ফুটবলে কিছু হয় না। কাজেই মাঠের বাইরে দলের কোচরা সাজাবেন নিজেদের আক্রমণ ও রক্ষণকৌশল।

আজ রাত থেকে যে উৎসবের শুরু, তার পর্দা নামবে এক মাস পর। এই একটি মাস বিশ্বকাপ ফুটবল ছড়াক উত্তাপ। বিশ্বকাপে কাঁপুক বিশ্ব। আমরা চাইব, শেষ পর্যন্ত জয়ী হোক ফুটবল। ফুটবলের ভেতর দিয়ে ভ্রাতৃত্ব ও মানবিক বোধ ছড়িয়ে যাক বিশ্বময়।


মন্তব্য