kalerkantho


জানা-অজানা

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান

[নবম ও দশম শ্রেণির ভূগোল ও পরিবেশ বইয়ে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের কথা উল্লেখ আছে]

আব্দুর রাজ্জাক   

৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান

বাংলাদেশের চিরহরিৎ বনগুলোর মধ্যে অন্যতম লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান। এটি একটি সংরক্ষিত বনাঞ্চল, যার পূর্ব নাম ‘ভানুগাছ সংরক্ষিত বন’। বনটির অবস্থান মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায়।

 

জীববৈচিত্র্যে ভরপুর বনটির আয়তন ১২৫০ হেক্টর।

১৯২৫ সালে ব্রিটিশ সরকার এখানে বৃক্ষায়ন করে, যা বেড়ে বনে পরিণত হয়। ১৯৭৪ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ, সংশোধন) আইন অনুযায়ী ১৯৯৬ সালে ‘জাতীয় উদ্যান’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

 

উদ্যানটিতে ৪৬০ প্রজাতির দুর্লভ উদ্ভিদ ও প্রাণী রয়েছে। এর মধ্যে ১৬৭ প্রজাতির উদ্ভিদ, ৪ প্রজাতির উভচর, ৬ প্রজাতির সরীসৃপ, ২৪৬ প্রজাতির পাখি এবং ২০ প্রজাতির স্তন্যপায়ী প্রানীর দেখা মেলে।

বিলুপ্তপ্রায় উল্লুকের জন্য এ বন বিখ্যাত।

উল্লুক ছাড়াও এখানে রয়েছে মুখপোড়া হনুমান, বানর, শিয়াল, মেছোবাঘ, বন্য কুকুর, ভাল্লুক, মায়া হরিণ, অজগরসহ নানা প্রজাতির জীবজন্তু।

 

পাখির মধ্যে আছে সবুজ ঘুঘু, বনমোরগ, তুর্কি বাজ, ইগল, হরিয়াল, কালোমাথা টিয়া, পেঁচা, ফিঙ্গে, লেজকাটা টিয়া, কালোবাজ, হীরামন, কালোমাথা বুলবুল, ধুমকলপ। উদ্ভিদের মধ্যে আছে গর্জন, সেগুন, গামার, মেনজিয়াম, জামরুল, চাপালিশ, নাগেশ্বর, শিমুল, লোহাকাঠ, জাম, ডুমুর, তুন, কড়ই। এ ছাড়া নানা প্রকারের দেশীয় গাছ দেখা যায়।

 

বর্তমানে উদ্যানটিতে ইউএসএআইডি (USAID)-এর আর্থিক সহযোগিতা প্রকল্প চালু আছে।


মন্তব্য