kalerkantho


জানা-অজানা

দূরবীক্ষণ যন্ত্র

[বিভিন্ন শ্রেণির বিজ্ঞান বইয়ে দূরবীক্ষণ যন্ত্রের কথা উল্লেখ আছে]

আব্দুর রাজ্জাক   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



দূরবীক্ষণ যন্ত্র

বিজ্ঞানের ইতিহাসে এক গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার দূরবীক্ষণ যন্ত্র বা টেলিস্কোপ। এটি এমন একটি যন্ত্র, যার সাহায্যে দূরবর্তী কোনো অস্পষ্ট বস্তু স্পষ্ট দেখা যায়। মহাকাশের গ্রহ, নক্ষত্র ও গ্যালাক্সি নিয়ে গবেষণা করতে বিজ্ঞানীরা এই দূরবীক্ষণ যন্ত্র ব্যবহার করেন।

 

যন্ত্রটি লেন্স ও দর্পণের সাহায্যে তৈরি। ১৬০৮ সালে হান্স লিপারশে নামের একজন ডাচ্ চশমা নির্মাতা যন্ত্রটি আবিষ্কার করেন। তিনি এমন একটি কাচ তৈরি করেন, যা দূরের বস্তুর দূরত্ব কমিয়ে আনে বা দূরের বস্তুকে বড় করে দেখায়। লিপারশে ওই বছরই দূরবীক্ষণ যন্ত্রের জন্য পেটেন্ট আবেদন করেছিলেন।

 

লিপারশের যন্ত্রটি না দেখেই ১৬০৯ সালে ইতালির পিসারবিজ্ঞানী গ্যালিলিও গ্যালিলি উন্নতমানের দূরবীক্ষণ যন্ত্র নির্মাণ করেন। পরে তা জ্যোতির্বিদ্যায় প্রয়োগ করা হয়। যন্ত্রটির সাহায্যে বৃহস্পতির চারটি উপগ্রহ আবিষ্কার করেন তিনি। গ্রহ ও উপগ্রহ পৃথিবীকে কেন্দ্র করে ঘুরছে—প্রাচীন এই মতবাদকে গ্যালিলিও ভুল প্রমাণ করেন। তাঁর মতে, পৃথিবী নয়, সূর্যকে কেন্দ্র করেই সব কিছু ঘুরছে। গ্যালিলিওই কিন্তু প্রথম টেলিস্কোপ আকাশের দিকে তাক করেছিলেন।

 

জোহানেস কেপলার ১৬১১ সালে একটি দূরবীক্ষণ যন্ত্র নির্মাণ করেন। তখনো প্রতিসরণ দূরবীক্ষণ যন্ত্রের যুগ ছিল, যা লেন্সের সাহায্যে কাজ করত। পরে জেমস গ্রেগরি প্রতিসরণ দুরবিনের উন্নতি ঘটান। উদ্ভাবন করেন প্রতিফলন দূরবীক্ষণ যন্ত্রের, যার মূল উপাদান হলো দর্পণ। প্রতিফলন দুরবিন তৈরিতে অবদান আছে আইজ্যাক নিউটনেরও।



মন্তব্য