kalerkantho


ডিএনসিসি উপনির্বাচন

আ. লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম

► তাবিথ ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী
► মেয়র পদে ১৯ জনের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ

বিশেষ প্রতিনিধি ও নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আ. লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উপনির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম আতিক। আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ডের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে আতিকুল ইসলামকে মনোনীত করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নির্বাচনে প্রার্থী হতে দুজন নারীসহ মোট ১৮ জন মনোনয়ন ফরম জমা দেন। আমাদের কোনো প্রার্থীর যোগ্যতা কম নয়। ১৮ জন থেকে একজন খুঁজে বের করা কঠিন। বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে আতিকুল ইসলামকে মনোনয়ন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যাচাই-বাছাই শেষে পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তির সম্ভ্রান্ত পরিবারের একজনকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।’ এ সময় দল মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।

এদিকে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তাবিথ আউয়ালই ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী বলে জানিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী। তিনি বলেন, ‘দল থেকে আমরা তাবিথ আউয়ালকে মনোনয়ন দিয়েছি। এখন নির্বাচন কমিশনে প্রার্থী হিসেবে ফাইল করা, জমা দেওয়া, বাছাই ইত্যাদি প্রক্রিয়া শেষ হলে তিনিই ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী হবেন।’

গতকাল দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব কথা বলেন। জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থী মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিনের নির্বাচনী মাঠে প্রচারণার পরিপ্রেক্ষিতে দলের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি।

অন্যদিকে ডিএনসিসি উপনির্বাচনে মেয়র পদে গতকাল আরো পাঁচজন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। এর আগে সংগ্রহ করেন ১৪ জন। সব মিলিয়ে গতকাল পর্যন্ত মেয়র পদে ১৯ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।

সহকারী রিটার্নিং অফিসার তাজুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার মো. জোনায়েদ আব্দুর রহিম সাকি, ফারুক আহমেদ, এস এম গোলাম রেজা, খালেদা খানম রুনু ও জিন্নুর আহমেদ চৌধুরী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।

আতিকুল ইসলাম আতিক পেলেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন : গত বছর ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহেই আতিকুল ইসলামকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী করার বিষয়ে সবুজ সংকেত দেন দলটির সভাপতি শেখ হাসিনা। সে অনুযায়ী বেশ কিছুদিন ধরেই বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ চালিয়ে আসছিলেন আতিকুল ইসলাম।

আতিকুল ইসলামের বড় ভাই তাফাজ্জাল ইসলাম আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের গত মেয়াদে প্রধান বিচারপতি ছিলেন। আতিকুল ইসলামের আরেক বড় ভাই লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মঈনুল ইসলাম বর্ডার গার্ডের সাবেক মহাপরিচালক। সরকারের গত মেয়াদের শুরুতে আলোচিত পিলখানা হত্যাকাণ্ডের পরপরই সেনা কর্মকর্তা মঈনুল ইসলাম বিডিআরের মহাপরিচালকের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তাঁর সময়েই বিডিআর বিজিবি নামে পুনর্গঠিত হয়। তিনি সর্বশেষ সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারের দায়িত্ব পালন করেন।

এর আগে প্রার্থী মনোনয়নে তিন দিনব্যাপী মনোনয়ন ফরম বিক্রি ও জমাদানের ব্যবস্থা করে আওয়ামী লীগ। সোমবার সন্ধ্যায় এ প্রক্রিয়া শেষ হয়। তিন দিনে মোট ১৮ মনোনয়নপ্রত্যাশী প্রত্যেকে ২৫ হাজার টাকার বিনিময়ে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন ও জমা দেন। এঁদের মধ্যে আতিক ছাড়া সাবেক সংসদ সদস্য এইচ বি এম ইকবাল ও ব্যবসায়ী আদম তমিজি হক বেশ আলোচনায় ছিলেন।

তাবিথই ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী : বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তাবিথ আউয়ালই ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বিষয়টি নিশ্চিত করেন। জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থী মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিনের নির্বাচনী মাঠে প্রচারণার পরিপ্রেক্ষিতে দলের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি।

জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থী সেলিম উদ্দিন নির্বাচনী মাঠে প্রচারণা চালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে রিজভী বলেন, ‘আমি বলছি, তাবিথ আউয়ালই ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী। এবার যদি সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়, তাহলে তাবিথ আউয়াল জনগণের বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন। বিএনপির পক্ষ থেকে আমি তাবিথ আউয়ালের পক্ষে ২০ দলীয় জোটসহ ঢাকা উত্তরের ভোটার ও নাগরিকদের তাঁর পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাই।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আবুল খায়ের ভুঁইয়া, মীর সরফত আলী সপুসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেন সাকি : সিপিবি-বাসদ ও বাম গণতান্ত্রিক মোর্চার প্রার্থী হিসেবে গতকাল দুপুরে শেরেবাংলানগরের নির্বাচন কমিশনারের কার্যালয় থেকে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি। এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন সিপিবির সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য রুহিন হোসেন প্রিন্স, গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা আবুল হাসান রুবেল, ফিরোজ আহমেদ, তসলিমা আখতার ও বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা বজলুর রশিদ ফিরোজ।

মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে সাকি বলেন, ‘বড় দুটি রাজনৈতিক দলের দ্বন্দ্বের বাইরে আমি স্বতন্ত্র হিসেবে মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছি। আমার দল গণসংহতি আন্দোলন আমাকে সমর্থন দিয়েছে। এ ছাড়া সিপিবি-বাসদ ও বাম গণতান্ত্রিক মোর্চাও আমাকে সমর্থনের কথা জানিয়েছে।’

এর আগে আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য এইচ বি এম ইকবাল, আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী মো. ওসমান গনি, বিএনপির কেন্দ্রীয় সহপ্রকাশনা সম্পাদক শাকিল ওয়াহেদ, ইসলামী ঐক্যজোটের গাজী ইয়াকুব, বিএনএফের ওয়াই এম কামরুল ইসলাম, অনিবন্ধিত দল বাংলাদেশ বিপ্লবী পার্টির আবুল কালাম আজাদ, আনিসুজ্জামান খোকন, মোরসালিন হায়দার, জামায়াতের সেলিম উদ্দিন, ইসলামী আন্দোলনের শেখ মোহাম্মদ ফজলে বারী মাসুম, এনপিপির মাসুম বিল্লাহ, স্বতন্ত্র স্বাধীন আখতার আইরিন, নিবন্ধনহীন বাংলাদেশ ডিজিটাল আওয়ামী লীগের পরিচয়ে রবিন কুমার পাল ও নিবন্ধনহীন নতুন দল এনডিএমের শাফিন আহমেদ মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন।

কাউন্সিল পদপ্রার্থী চূড়ান্ত করছে উত্তর মহানগর বিএনপি : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হিসেবে মনোনয়নে আগ্রহীদের তালিকা করছে উত্তর মহানগর বিএনপি। দু-এক দিনের মধ্যে এই তালিকা কেন্দ্রীয় দপ্তরে জমা দেওয়ার পর প্রকাশ করা হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির দপ্তর সম্পাদক এ বি এম এ রাজ্জাক স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গতকাল নয়াপল্টনে ভাসানী ভবন কার্যালয়ে কাউন্সিলর পদে দলীয় মনোনয়ন প্রার্থীদের কাছে ১০৩টি ফরম বিক্রি করা হয়েছে। এর মধ্যে জমা পড়েছে ১০০টি ফরম।

কাউন্সিলর পদপ্রার্থীদের সাক্ষাৎকারসংক্রান্ত প্রতিবেদন বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তরে উপস্থাপনের পর কাউন্সিলর পদপ্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে।


মন্তব্য