kalerkantho


সিকিউরিটিজ আইন ভঙ্গে জরিমানাসহ ১০ সিদ্ধান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ আইন ভঙ্গ করায় এক কম্পানি ও চার সিকিউরিটিজকে জরিমানা করেছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটি অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। গতকাল মঙ্গলবার কমিশনের নিয়মিত সভায় একই সঙ্গে ১০টি সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়।

সিদ্ধান্তের মধ্যে রয়েছে পুঁজিবাজার থেকে মূলধন উত্তোলনে আমান কটন ফাইবার্স লিমিটেড বিডিংয়ের অনুমোদন পেয়েছে। কম্পানিটি কটন, পলিয়েস্টার, সিল্কসহ অন্য ফাইবার উৎপাদন করে। কম্পানিটি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে ৮০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। এই অর্থ দিয়ে নতুন মেশিন ক্রয় ও স্থাপন, ব্যাংকঋণ পরিশোধ ও আইপিও খাতে খরচ করবে।

প্যাসিফিক ডেনিমসে বিশেষ নিরীক্ষক : প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে উত্তোলিত অর্থ ব্যবহারে অস্বাভাবিকতা পরিলক্ষিত হওয়ায় প্যাসিফিক ডেনিমসে বিশেষ নিরীক্ষক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। প্রসপেক্টাসে দেওয়া তথ্য মতো অর্থ ব্যবহার হয়েছে কি না খতিয়ে দেখতে এই বিশেষ নিরীক্ষক।

নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন দাখিলে ব্যর্থতায় আইন লঙ্ঘনে ঢাকা ফিশারিজ লিমিটেডের প্রত্যেক পরিচালককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

চার সিকিউরিটিজ হাউসকে ১৬ লাখ টাকা জরিমানা : সিকিউরিটিজ আইন ভঙ্গে চার সিকিউরিটিজ হাউসকে জরিমানা করেছে কমিশন। ইন্ডিকেট সিকিউরিটিজ কনসালট্যান্টসকে তিন লাখ টাকা, ফখরুল ইসলাম সিকিউরিটিজকে পাঁচ লাখ টাকা, আজম সিকিউরিটিজকে পাঁচ লাখ টাকা ও সায়া সিকিউরিটিজকে তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এই চার সিকিউরিটিজ কনসলিটেড কাস্টমার অ্যাকাউন্টে ঘাটতির মাধ্যমে আইনের লঙ্ঘন করেছে। এ ছাড়া অনুমোদিত প্রতিনিধিদের নামে বিও হিসাব খুলে ও জেড ক্যাটাগরির শেয়ার ক্রয়ে মার্জিন প্রদানে আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়েছে।

জেনিথ অ্যানুয়াল ইনকাম ফান্ডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন পেয়েছে।


মন্তব্য