kalerkantho


পুঁজিবাজার সংশোধন

কমেছে মূল্যসূচক লেনদেনে ধীরগতি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



নতুন বছরে কয়েক দিন সূচক ও লেনদেন বৃদ্ধির পর গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্য সংশোধন হয়েছে। এদিন বেশির ভাগ কম্পানির শেয়ারের দাম হ্রাস পাওয়ার সঙ্গে কমেছে সূচক ও লেনদেন। ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ বড় বড় কম্পানির শেয়ারের দামও কমেছে।

আগের দিন ডিএসইতে বাজার মূলধন অতীতের রেকর্ড ভেঙে সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌঁছে। গতকাল লেনদেন হয়েছে ৫১৮ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। আর সূচক কমে ১৫ পয়েন্ট। বুধবার লেনদেন হয়েছিল ৫৭৬ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছিল ৩৮ পয়েন্ট।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, লেনদেন শুরুতে শেয়ার ক্রয়ের চাপ থাকলেও পরে হ্রাস পেয়েছে। সকাল ১০টা ৩৭ মিনিটের পর থেকে শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়তে থাকে। এতে সূচক কমে যায়। দিন শেষে সূচক দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৩১৮ পয়েন্ট। আর ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১০ পয়েন্ট কমে দুই হাজার ৩০১ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক ৯.৫৭ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৪১১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হওয়া ৩৩৫টি কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১৩৬টির, কমেছে ১৪৮টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৫১টির দাম।

আইডিএলসির বাজার পর্যবেক্ষণ বলছে, আগের দিনের চেয়ে ডিএসইতে সূচক ও লেনদেন হ্রাস পেয়েছে। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, প্রকৌশল এবং খাদ্য ও আনুসঙ্গিক খাতে কম্পানির শেয়ারের মূল্যবৃদ্ধি পেয়েছে। নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ওষুধ ও রসায়ন, ব্যাংক এবং টেলিকমিউনিকেশন খাতের শেয়ারের দাম হ্রাস পেয়েছে।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২১ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ৩৩ পয়েন্ট। লেনদেন হওয়া ২৩৬টি কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৯৫টির, কমেছে ১১৯টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টি কম্পানির শেয়ারের দাম।


মন্তব্য