kalerkantho


ব্রেক্সিটে আমদানি-রপ্তানি ক্ষতি হবে ৫৮ বিলিয়ন পাউন্ড

বাণিজ্য ডেস্ক   

১৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



ব্রেক্সিটে আমদানি-রপ্তানি ক্ষতি হবে ৫৮ বিলিয়ন পাউন্ড

ব্রিটেন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) কম্পানিগুলোকে অতিরিক্ত ৫৮ বিলিয়ন পাউন্ড বার্ষিক ক্ষতির মুখে পড়তে হবে যদি কোনো চুক্তি ছাড়াই ব্রেক্সিট আলোচনা শেষ হয়। এতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে ব্রিটেনের বৃহৎ আর্থিক খাত। গত সোমবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

ওলিভার উইমেন ম্যানেজমেন্ট কনসালট্যান্টস এবং আইন প্রতিষ্ঠান ক্লিফর্ড চান্স প্রকাশিত প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, যদি কোনো চুক্তি ছাড়াই ব্রিটেন ইইউ ত্যাগ করে তবে ইইউর ২৭ দেশের ব্যবসায়ীদের ব্রিটেনে পণ্য প্রবেশে শুল্ক ও অশুল্ক বাবাদ ৩১ বিলিয়ন পাউন্ড খরচ করতে হবে। এর বিপরীতে ব্রিটেনের রপ্তানিকারকদেরও পণ্য প্রবেশে বছরে অতিরিক্ত ২৭ বিলিয়ন পাউন্ড খরচ করতে হবে।

এসব কারণে কম্পানিগুলোর ব্যয় বাড়বে, মুনাফা কমবে এবং অনেক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের টিকে থাকাই হুমকির মুখে পড়বে। ব্রিটেনের গণভোটে ব্রেক্সিটের পক্ষে জনগণ ভোট দেওয়ায় দেশটি ইইউ ত্যাগের আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। আশা করা হচ্ছে, আগামী বছরই এ আলোচনার পরিসমাপ্তি ঘটবে এবং ব্রিটেন সবচেয়ে বড় বাণিজ্যিক ব্লক ইইউ ত্যাগ করবে। এত দিন ব্রিটেনের সঙ্গে বাকি ২৭ দেশের বাণিজ্য শুল্ক মুক্ত হলেও নতুন কোনো চুক্তি না হলে বিশ্ববাণিজ্য সংস্থার নিয়ম মেনে ও শুল্ক দিয়েই উভয়কে অন্যের বাজারে পণ্য প্রবেশ করাতে হবে। তবে ব্রিটেনের তরফ থেকে জানা যায়, দেশটি একটি চুক্তি করার ব্যাপারে আগ্রহী হলেও চুক্তি ছাড়াই আলোচনা শেষ হতে পারে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্রিটেনের পাঁচটি খাতকে ৭০ শতাংশ অতিরিক্ত খরচ বহন করতে হবে। এগুলো হচ্ছে আর্থিক সেবা, গাড়ি, কৃষি, খাদ্য ও পানীয়, ভোক্তা পণ্য এবং কেমিক্যাল ও প্লাস্টিক খাত।

ইতিপূর্বে ব্যাংক অব ইংল্যান্ড সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, ব্রেক্সিটের কারণে আগামী বছরের শেষ নাগাদ ব্রিটেনের আর্থিক খাত থেকে ১০ হাজার চাকরি চলে যাবে। রয়টার্স।


মন্তব্য