kalerkantho


বরিশালে শীতার্তদের আর্তনাদ, দেখার কেউ নেই

বরিশাল অফিস   

১৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ষাটোর্ধ্ব আলেয়া বেগম। বরিশাল নৌবন্দর তাঁর বসবাসের ঠিকানা। শীত-গ্রীষ্ম আর বর্ষা সব সময়ই পন্টুনে ঘুমিয়ে থাকেন তিনি। প্রতিবছর শীতে তাঁর জন্য কম্বলের ব্যবস্থা করেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা কিংবা ব্যবসায়ীরা। তবে এবারের শীতে তাঁর খোঁজ নেয়নি কেউ। একটি শীতবস্ত্রও পাননি তিনি। তাই পাতলা একটি কাপড় মুড়িয়ে শীতের ঝাপটায় কাঁপতে কাঁপতে তাঁর রাত কাটে।

কেবল আলেয়াই নন, বরিশাল নগরীর লঞ্চঘাট, নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনাল, ছয়টি কলোনি, উপজেলার অসহায় মানুষ ও পথশিশুরা এবার শীতবস্ত্র পায়নি। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা এখনো শীতবস্ত্র নিয়ে তাদের কাছে যাননি।

প্রতিবছর অগ্রহায়ণ মাসের মধ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা, জনপ্রতিনিধি ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে শীতার্তদের শীতবস্ত্র দেওয়া হয়। কিন্তু এ বছর পৌষ মাস পেরিয়ে গেলেও শীতবস্ত্র নিয়ে কারো দেখা মেলেনি।

তবে গতকাল সোমবার সকালে রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়নে ব্যক্তি উদ্যোগে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। তা ছাড়া দু-একটি অরাজনৈতিক সংগঠন শীতার্তদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করেছে। এর মধ্যে সরকারি বিএম কলেজ, বরিশাল কলেজ ও মহিলা কলেজের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন রয়েছে। এর বাইরেও মুলাদী ও বাবুগঞ্জ উপজেলায় আলোকিত মুলাদী নামের একটি সংগঠনের পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র দেওয়া হয়েছে। ওই সংগঠনের প্রধান যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসম্পাদক মিজানুর রহমান খান বলেন, ‘আমরা দুই উপজেলার প্রায় ১০ হাজার শীতার্ত মানুষের মধ্যে কম্বল ও গরম পোশাক বিতরণ করেছি। এখানে শীতার্ত মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। তাই আমাদের আরো শীতবস্ত্র বিতরণের পরিকল্পনা রয়েছে।’ বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের অলাভজনক প্রতিষ্ঠান এসআর সমাজকল্যাণ সংস্থার চেয়ারম্যান মো. সালাহউদ্দিন রিপন বলেন, ‘লাহারহাট ফেরিঘাট এলাকায় মান্তা সম্প্রদায়ের বসবাস। শীতে তারা অবর্ণনীয় কষ্টের মধ্যে রয়েছে। কিন্তু দেখার কেউ নেই।’ 

তবে রাজনৈতিক সংগঠনের নেতা এবং জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তাঁরা শিগগিরই শীতবস্ত্র বিতরণ করবেন। বিভিন্ন কর্মসূচি থাকায় এত দিন শীতবস্ত্র বিতরণ করা সম্ভব হয়নি। বরিশাল সদর উপজেলার চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু বলেন, ‘রাজনৈতিক বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে ব্যস্ত থাকায় কম্বল বিতরণ করা সম্ভব হয়নি। তবে কয়েক দিনের মধ্যেই আমরা শীতার্তদের কম্বল ও গরম পোশাক বিতরণ করব।’

বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল বলেন, ‘শীতার্তদের মধ্যে বস্ত্র বিতরণের সব প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। রাজনৈতিক কর্মসূচির কারণে এত দিন তা সম্ভব হয়নি। তবে অচিরেই আমরা তাদের বস্ত্র বিতরণ করব।’ বিএনপির বরিশাল মহানগর শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, ‘আমরা শীতবস্ত্র বিতরণ অগ্রহায়ণ মাসেই করে থাকি। দলের নেতাকর্মীরা ওই কম্বলগুলো সরবরাহ করে। কিন্তু ৫ জানুয়ারিকে কেন্দ্র করে পুলিশি হয়রানির কারণে এবার তা হয়ে ওঠেনি। তবে কিছুদিনের মধ্যেই আমরা শীতার্তদের মধ্যে কম্বল বিতরণ করব।’


মন্তব্য