kalerkantho


এপার-ওপার দ্বন্দ্ব

২৬ দিন বাস চলাচল বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল   

১৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



২৬ দিন বাস চলাচল বন্ধ

কালিজিরা খাল বিচ্ছিন্ন করেছে দুই জেলাকে। খালের এপারে বিভাগীয় শহর বরিশাল, ওপারে জেলা শহর ঝালকাঠি। এপার-ওপার দ্বন্দ্বের কারণে বরিশাল-ঝালকাঠি রুটে সরাসরি বাস চলাচল ২৬ দিন ধরে বন্ধ রয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে পিরোজপুর, বরগুনা, পাথরঘাটা, মঠবাড়িয়া, ভাণ্ডারিয়া, রাজাপুর, নলছিটি, মোল্লারহাট ও খুলনা রুটেও। এ অবস্থা নিরসনের জন্য অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনারকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ওই কমিটি দুটি বৈঠকের আয়োজন করলেও দুই নেতার অনুপস্থিতির কারণে বৈঠক ভেস্তে গেছে। ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতি কুয়াকাটা রুটে তাদের বাস চলাচলের দাবি তুললে তা নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে বাস চলাচল বন্ধ হয়।

এদিকে বাস চলাচল বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে ১০ রুটের যাত্রীরা। তাদের রূপাতলী থেকে বিকল্প বাহনে (অটোরিকশা, মহেন্দ্র) প্রায় সাত কিলোমিটার দূরে ঝালকাঠির রায়পুরা অস্থায়ী স্ট্যান্ডে গিয়ে বাস ধরতে হচ্ছে। এতে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয়ের পাশাপাশি ভোগান্তি তো আছেই। অন্যদিকে বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা এই তিন জেলা বাস মালিক ও শ্রমিক সমন্বয় পরিষদ ঘোষণা দিয়ে ঝালকাঠির রায়পুরা অস্থায়ী স্ট্যান্ড না সরিয়ে আজ মঙ্গলবার থেকে দক্ষিণাঞ্চলের সব রুটে তারা বাস চলাচল বন্ধ করে দেবে।

বরিশালের রূপাতলী বাসস্ট্যান্ড থেকে ঝালকাঠি হয়ে ১০টি রুটে গত আড়াই মাসে তিন দফায় সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ হয়েছে। সর্বশেষ ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১০টি রুটে তৃতীয় দফায় সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ হয়। ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতির দাবি, ঝালকাঠি থেকে বরিশাল পর্যন্ত মাত্র দুই কিলোমিটার রাস্তা ব্যবহার করে ঝালকাঠির ওপর দিয়ে ৪৬টি বাসের ট্রিপ চলে। অন্যদিকে বরিশাল থেকে পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সড়কপথে ঝালকাঠির ওপর দিয়ে আট কিলোমিটার রাস্তা ব্যবহার করছে বরিশাল বাস মালিক সমিতি। অথচ এই রুটে ঝালকাঠি মালিক সমিতির কোনো বাস নেই। এই হিস্যা বাড়ানোর দাবিতে ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতির সভাপতি সরদার শাহ আলম বলেন, ‘আমাদের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে কালিজিরা সেতুর ঢালে রায়পুরায় নতুন বাসস্ট্যান্ড করা হয়েছে। প্রথম দিকে ১০ রুটে বাস চলাচল বন্ধ রাখা হলেও যাত্রীদের দুর্ভোগের কথা ভেবে ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ওই রুটে রায়পুরা স্ট্যান্ড থেকে বাস চলাচল করছে।’

বরিশালের রূপাতলী বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওসার হোসেন শিপন বলেন, ঝালকাঠি বাস-মিনিবাস মালিক সমিতিতে নতুন কোনো গাড়ির প্রয়োজন না থাকা সত্ত্বেও স্বার্থ হাসিলের জন্য ২৫টি বাস কিনেছেন। নতুন বাস চালানোর ব্যাপারে ঝালকাঠি সমিতির নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়েছে। সেই নতুন বাস পটুয়াখালী-কুয়াকাটা রুটে চালানোর জন্য চেষ্টা করছেন। তাই যাত্রীদের জিম্মি করে রায়পুরা অবৈধ বাসস্ট্যান্ড করেছেন। ওই স্ট্যান্ড অপসারণ না করলে ১৩ মার্চ থেকে দক্ষিণাঞ্চলের সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে।

অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) মো. গোলাম মোস্তফা সাংবাদিকদের বলেন, বরিশাল ও ঝালকাঠি জেলা বাস মালিক সমিতির দুই নেতা চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে অবস্থান করায় ৬ মার্চ যে সভা আহ্বান করা হয়েছিল, তা স্থগিত করা হয়েছে। দুই জেলার দ্বন্দ্ব নিরসন প্রশাসনিকভাবে হবে না, এটি রাজনৈতিকভাবেই সমাধানে যেতে হবে।


মন্তব্য