kalerkantho


চকোলেট বিলুপ্ত ২০৫০ সালে!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



চকোলেট বিলুপ্ত ২০৫০ সালে!

যারা চকোলেট খেতে পছন্দ করে তাদের জন্য মন খারাপ করা সংবাদ দিয়েছেন গবেষকরা। গবেষকদের আশঙ্কা, অদূর ভবিষ্যতে চকোলেট বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে। এর জন্য তারা দায়ী করেছেন জলবায়ু পরিবর্তনকে। অস্বাভাবিকভাবে তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণে এরই মধ্যে দুনিয়ার চকোলেট প্রস্তুতকারী শোধনাগারগুলো ভূগতে শুরু করেছে। ভবিষতে চকোলেট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে এর বড় ধরনের প্রভাব মোকাবেলা করতে হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক দেশটির ‘মার্স’ নামে একটি কম্পানির সঙ্গে যৌথ গবেষণা চালিয়ে এসব আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

গবেষকরা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় ওষুধ ও বায়ুমণ্ডল পর্ববেক্ষণ সংস্থার তথ্য মতে, যেভাবে তাপমাত্রা বাড়ছে এবং শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করছে তাতে ২০৫০ সালের মধ্যে চকোলেট উৎপাদন প্রচণ্ড ধাক্কা খাবে। ক্রমবর্ধমান তাপমাত্রা চকোলেট তৈরির উৎস কোকো উদ্ভিদের জন্য হুমকি। অবশ্য ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা আশার কথা শুনিয়েছেন, তাঁরা ক্ষতিকর তাপমাত্রা থেকে  কোকো উদ্ভিদ রক্ষার জন্য ‘সিআরআইএসপিআর’ কৌশল আবিষ্কার করেছেন।

গবেষকরা তাঁদের প্রতিবেদনে বলছেন, কোকো উদ্ভিদ থেকে তৈরি ‘ডার্ক’ চকোলেট স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। শরীরের অতি মূল্যবান এন্টি-অক্সিডেন্টের জোগান দেয় চকোলেট। রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। ‘ডার্ক’ চকোলেটের কোকো পলিফেনল ও ফ্লেভোনিওয়েডের সর্বোচ্চ উপাদান মানব শরীরের জন্য অনেক উপকারী। এই চকোলেট খেলে উচ্চ রক্তচাপ কমে যায়, হূদরোগের ঝুঁকি যেমন কমায় তেমনি হূদযন্ত্রে রক্তপ্রবাহ বাড়ে। সূত্র : এনডিটিভি।

 


মন্তব্য