kalerkantho


নড়াইলের প্রভাষ হত্যায় ৯ জনকে ফাঁসির আদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা   

১৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



নড়াইলের প্রভাষ হত্যায় ৯ জনকে ফাঁসির আদেশ

প্রতীকী ছবি

নড়াইলের আওয়ামী লীগ নেতা প্রভাষ রায় হত্যা মামলায় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) বরখাস্ত হওয়া এক চেয়ারমানসহ ৯ আসামিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার আদেশ দিয়েছেন আদালত। মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি আসামিদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানাও করা হয়েছে।

গতকাল রবিবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ রব হাওলাদার সব আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যান (বরখাস্ত) শহিদুর রহমান শহিদ, আসিক মিনা, রাসেল মিনা, ইলিয়াস মিনা, এনায়েত মোল্লা, ইয়াসিন মোল্লা, মামুন মিনা, বাসার মোল্লা ও রবিউল মোল্লা। গ্রেপ্তার হওয়ার পরই শহিদুর রহমান শহিদকে ভদ্রবিলা ইউপি চেয়ারম্যানের পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়।

রায়ের পর সরকারপক্ষের কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট এনামুল হক কালের কণ্ঠকে বলেন, বাদী ন্যায়বিচার পাওয়ায় সন্তুষ্ট। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের আগামী সাত দিনের মধ্যে উচ্চ আদালতে আপিল করতে হবে।

মামলার বাদী নিহত প্রভাষ রায়ের স্ত্রী টুটুল রানী রায় এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে আদালতের দেওয়া রায় দ্রুত কার্যকর করার দাবি জানান। 

আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মামুন বলেন, ‘আমরা এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করব।’

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় নড়াইল জেলার সদরে আওয়ামী লীগ ভদ্রবিলা ইউনিয়ন শাখার সভাপতি প্রভাষ রায়কে মীরাপাড়া বাজারে ফারুক মোল্লার চায়ের দোকানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়। স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে নড়াইলে হাসপাতালে নেয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর পর রাতেই তিনি মারা যান। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে ওই বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি ৯ জনকে আসামি করে নড়াইল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ২২ ফেব্রুয়ারি নড়াইল থানার উপপরিদর্শক ভবতোষ রায় ৯ আসামিকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। আদালত ১৮ জনের মধ্যে ১৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এই রায় ঘোষণা করেন।

আমাদের নড়াইল প্রতিনিধি জানান, আদালতের রায়ে জেলার আওয়ামী লীগের নেতারাসহ এলাকার মানুষজন খুশি হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস বলেন, আওয়ামী লীগ একজন নিবেদিতপ্রাণ কর্মীকে হারিয়েছে। তাঁর শূন্যস্থান পূরণ হওয়ার নয়; তবে আদালতের রায়ে অপরাধীরা দণ্ড পেলে তাঁর আত্মা শান্তি পাবে।


মন্তব্য