kalerkantho


সবিশেষ

শিশুকে স্তন্যদানের সুফল

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



শিশুকে স্তন্যদানের সুফল

যেসব মা তাঁর শিশুসন্তানকে ছয় মাস বা এর বেশি সময় বুকের দুধ পান করান, সেই মায়েদের ডায়াবেটিস রোগের ঝুঁকি অর্ধেক কমে যায়। এমনকি কমে যায় স্তন ক্যান্সারের মতো রোগের ঝুঁকিও। যুক্তরাষ্ট্রের এক দল গবেষক তিন দশক ধরে গবেষণা চালিয়ে এসব তথ্য পেয়েছেন।

গবেষকরা বলছেন, শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর ফলে শরীরে হরমোনের মাধ্যমে বিশেষ এক রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা সৃষ্টি হয়, যা অগ্ন্যাশয়ে কাজ করে, রক্তে ইনসুলিনের মাত্রা ও শর্করা নিয়ন্ত্রণ করে। এসংক্রান্ত গবেষণা প্রতিবেদন যুক্তরাষ্ট্রের মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (জেএএমএ) জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।    

গবেষকদলের প্রধান জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী এরিকা গ্যান্ডারসন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও আফ্রিকার এক হাজার ২০০র বেশি নারীর ওপর এই গবেষণা চালানো হয়। এতে দেখা যায়, যেসব নারী প্রসবের পর ছয় মাস তাঁর শিশুকে বুকের দুধ পান করিয়েছেন এবং এর মধ্য দিয়ে স্তনে দুধের চাপ হ্রাস করতে পেরেছেন তাঁদের স্তন ক্যান্সারসহ দুই ধরনের ডায়াবেটিক রোগের ঝুঁকি ৪৭ শতাংশ কম। একইভাবে যাঁরা ছয় মাস বা এর বেশি সময় ধরে বুকের দুধ হ্রাস করতে পারেননি, তুলনামূলক তাঁদের হরমোনজনিত রোগের ঝুঁকি বেশি।

গবেষকরা পরামর্শ দিয়েছেন, গর্ভাবস্থার পর যথার্থ সময় ধরে বুকের দুধ হ্রাস না হলে পরবর্তী সময় নানা রোগে পড়তে হতে পারে। গর্ভকালীন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হলে মা-শিশুকে দীর্ঘকালীন রোগের কবলে থাকতে হতে পারে। ঠিকমতো বুকের দুধ হ্রাস না হলে জীবনাচরণসহ পরবর্তী সময় নানা সমস্যায় পড়তে হতে পারে। এমনকি স্তন ক্যান্সারের মতো মরণব্যাধি শরীরে বাসা বাঁধতে পারে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য