kalerkantho


পণ্যমূল্য নজরদারিতে মাঠে নামছে এনবিআর

ফারজানা লাবনী   

১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



পণ্যমূল্য নজরদারিতে মাঠে নামছে এনবিআর

ব্যবসায়ীরা কত দামে পণ্য কিনে বাজারে তা বিক্রি করছে কত, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এখন থেকে তা নজরে রাখবে। রাজস্ব আদায়ের পাশাপাশি এনবিআরের শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর এবং ভ্যাট গোয়েন্দা শাখার কর্মকর্তারা বিষয়টির ওপর নজরদারি করবেন। আগামী সপ্তাহ থেকে এ অভিযান শুরু হবে বলে জানা গেছে।

অতিরিক্ত মুনাফার জন্য কোনো ব্যবসায়ী চড়া দামে পণ্য বিক্রি করলে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানাবে এনবিআর।

অভিযান চালানোর পর পাওয়া তথ্য প্রতিবেদন আকারে নিয়মিত এনবিআর চেয়ারম্যানের দপ্তরে জমা দেওয়া হবে। প্রতিবেদন যাচাই-বাছাই করে বাজারে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করা অসাধু ব্যবসায়ীদের নামের তালিকা বাণিজ্য ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। এনবিআর সূত্র জানায়, প্রথম ধাপে রাজধানীতে এ অভিযান পরিচালনা করা হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে বিভাগীয় ও জেলা শহরগুলোতেও এ অভিযান পরিচালিত হবে।

কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নিজের পকেট ভারী করতে অনেক সময় যে দামে পণ্য সংগ্রহ (স্থানীয় বাজার বা আমদানি) করে তার চেয়ে বহু গুণ বেশি মূল্যে বিক্রি করে। এর ফলে ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ। অনেক সময় চাল, চিনি, তেলসহ অনেক ভোগ্য পণ্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে অসাধু ব্যবসায়ীরা বাজার অস্থিতিশীল করে তোলে। এসব পরিস্থিতিতে সরকারকেও নানা নেতিবাচক প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়।

সূত্র জানায়, পণ্য কত দামে সংগ্রহ করা হয়েছে এবং কত দামে বিক্রি করা হচ্ছে, সঠিকভাবে ভ্যাট পরিশোধ করা হচ্ছে কি না বাজারে তা খতিয়ে দেখবেন গোয়েন্দারা।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘কত দামে পণ্য আমদানি করা হয়েছে, আর তা বাজারে কত দামে বিক্রি করা হচ্ছে—এসব খতিয়ে দেখলে দাম বাড়ানোর সুযোগ কমে যাবে। ব্যবসায়ীরা পণ্য আমদানি করে মুনাফা রেখে বিক্রি করবে, এটাই স্বাভাবিক নিয়ম। তবে নিয়মের তোয়াক্কা না করে, ভোক্তাদের জিম্মি করে ইচ্ছামতো দাম বাড়িয়ে দিয়ে বাজার অস্থিতিশীল করা হবে, এ মানা যায় না। শুল্ক গোয়েন্দারা দ্রুততম সময়ে এ বিষয়ে নজরদারি শুরু করবেন। অসাধু ব্যবসায়ীদের শাস্তির আওতায় আনা গেলে দাম বাড়ানোর এই প্রক্রিয়া বন্ধ হবে। বাজারও স্থিতিশীল থাকবে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভ্যাট গোয়েন্দার একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, পণ্য কত দামে কেনা হচ্ছে, কত দামে বিক্রি করা হচ্ছে, সঠিকভাবে রাজস্ব দেওয়া হচ্ছে কি না তা যাচাই করার আইনি অধিকার রয়েছে ভ্যাট গোয়েন্দাদের। নজরদারি করে অসাধু ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা হবে।


মন্তব্য