kalerkantho


সরিষাবাড়ীতে প্রশ্নপত্র ফাঁস

সরকারি কর্মকর্তা ও পাঁচ পরীক্ষার্থী আটক, বহিষ্কার

জামালপুর প্রতিনিধি   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সরকারি কর্মকর্তা ও পাঁচ পরীক্ষার্থী আটক, বহিষ্কার

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিদর্শকসহ ছয়জন আটক হয়েছে। একই ঘটনায় বহিষ্কার করা হয়েছে পাঁচ পরীক্ষার্থীকে। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে থানায় একটি মামলা হয়েছে। আটক সহকারী পরিদর্শক ফারুক আহম্মেদকে (৪২) গতকাল বুধবার জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফিরোজ আল মামুন জানান, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের ছবি দিয়ে এক্সাম (পরীক্ষা) নামে ফেসবুক আইডি খুলে ১০-১২ জনের একটি গ্রুপ এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস করে আসছিল। মঙ্গলবার সকালে পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ আগে তথ্য পাওয়া যায় যে সরিষাবাড়ী রিয়াজ উদ্দিন তালুকদার উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষাকেন্দ্রের পাশে প্রভাষক বেলাল হোসেনের বাড়িতে ওই গ্রুপ ফেসবুক আইডি থেকে পদার্থবিজ্ঞানের প্রশ্নপত্র বের করছে। তাত্ক্ষণিক অভিযান চালিয়ে ওই গ্রুপের প্রধান ফারুক আহম্মেদ, এসএসসি পরীক্ষার্থী রুমানা আক্তার রিয়া, মারজিয়া মোনতাহা, মেহেনাজ তাবাসসুম দিশা ও পরাগ ফারদিয়াকে আটক করা হয়। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে আরেক পরীক্ষার্থী জাহিদুল ইসলামকে পরীক্ষাকেন্দ্র থেকে আটক করা হয়। এ সময় চারটি মোবাইল ফোনসেটসহ প্রশ্নপত্র ফাঁসে ব্যবহৃত সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। ওই পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা থেকে বহিষ্কারও করা হয়।

সরিষাবাড়ী থানার ওসি রেজাউল ইসলাম খান জানান, পরীক্ষাকেন্দ্রের সহকারী সচিব অরুণ কুমার সাহা বাদী হয়ে আটক ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। প্রধান আসামি ফারুক আহম্মেদকে গতকাল বুধবার জেলহাজতে পাঠানো হয়। আটক পরীক্ষার্থীদের বয়স শিশু আইনের আওতায় বলে মানবিক বিবেচনা করে সমাজসেবা কর্মকর্তা রুহুল আমিনের জিম্মায় তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম রিমেল জানান, প্রশ্নপত্র ফাঁস, নকল প্রতিরোধ ও কোচিং বাণিজ্য বন্ধে স্থানীয় প্রশাসন কঠোর অবস্থানে রয়েছে।

 


মন্তব্য