kalerkantho


জার্মানির বাঁচা-মরার লড়াই

২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০



জার্মানির বাঁচা-মরার লড়াই

১৯৯৮ এর বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। সেই তারা পরের বিশ্বকাপে ছিটকে পড়ে প্রথম রাউন্ডে! ২০০৬ চ্যাম্পিয়ন ইতালির একই পরিণতি ২০১০-এ। আবার ২০১০-এর চ্যাম্পিয়ন স্পেনও ব্রাজিল থেকে দেশে ফেরে প্রথম রাউন্ড থেকে হেরে। ইউরোপিয়ান দলগুলোর এমন ব্যর্থতার বৃত্ত কি আজ ভাঙবে জার্মানি। নাকি ব্যর্থতার স্রোতে ভেসে তাদের স্বপ্নও ভাসবে প্রথম রাউন্ডেই! হাল ছাড়ছেন না দলের কেউ। আজ সুইডেনের সঙ্গে জ্বলে ওঠার প্রত্যয় সবার। অধিনায়ক মানুয়েল নয়ার দিলেন সেই প্রতিশ্রুতি, ‘মেক্সিকোর সঙ্গে কেন জানি আমরা সাহসী আর আত্মবিশ্বাসী হতে পারিনি। আমাদের শরীরী ভাষা ইতিবাচক ছিল না। এটা নতুন দল নয়। হারের জন্য সবাই দায়ী, কারণ খেলোয়াড়রাই মাঠে ছিলাম আমরা। নিজেদের মধ্যে কথা হয়েছে। ব্যর্থতা ভুলে সুইডেনের বিপক্ষে নিজেদের খেলাটা খেলতে চাই সবাই।’

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ধরে রানার্স-আপের অঙ্ক কষা হচ্ছিল সুইডেন আর মেক্সিকোকে ঘিরে। প্রথম ম্যাচের পর বদলে গেছে হিসাব। আজ সুইডেন জিতলে আর অপর ম্যাচে মেক্সিকো যদি দক্ষিণ কোরিয়াকে হারায় তাহলে বাদ জার্মানিই! ফিফা র‌্যাংকিংয়ে পিছিয়ে পড়লেও সুইডেন মোটেও হেলাফেলার দল নয়। বিশ্বকাপে যখনই এসেছে চেষ্টা করেছে দাগ কাটার। ১৯৫৮ সালে স্বাগতিক হয়ে পৌঁছে গিয়েছিল ফাইনালে। ১৯৫০ সালে হয়েছিল তৃতীয়। সবশেষ ২০০২ ও ২০০৬ সালেও খেলে দ্বিতীয় রাউন্ডে। এবার বাছাই পর্বে হারিয়েছিল ফ্রান্সকে। আর প্লে-অফে পেছনে ফেলেছে চারবারের চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে। জার্মানির সঙ্গে তাই পাল্লা দিয়ে খেলার চ্যালেঞ্জ সুইডিশ কোচ ইয়ানে অ্যান্ডারসনের, ‘জার্মানি শিরোপাপ্রত্যাশী দল। ওদের সঙ্গে সেরা পরিকল্পনা নিয়ে খেলতে নামব আমরা।’

জার্মানি-সুইডেন একে অন্যের মুখোমুখি হয়েছে ৩৬ বার। জার্মানির জয় ১৫ আর সুইডেনের ১৩টি। তবে ২০০০ সালের পর মাত্র পাঁচবারই দেখা তাদের। এই পাঁচ ম্যাচের কোনোটিতে হারেনি জার্মানি। ছয় বছর আগে সবশেষ দেখায় জার্মানি এগিয়ে ছিল ৪-০ গোলে। সেই ম্যাচ শেষ হয় ৪-৪ সমতায়! এর আগে ২০১৪ বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে জার্মানি জিতেছিল ৫-৩ গোলে। মানে দুই ম্যাচেই ১৬ গোল! আজ এমন কিছুর প্রত্যাশা করা কঠিন। কারণ জার্মানি বা সুইডেন ছন্দে নেই কেউ। দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে পেনাল্টিতে জিতেছিল সুইডিশরা, যা আবার ৪০২ মিনিট পর আন্তর্জাতিক ফুটবলে তাদের প্রথম গোল। আর জার্মানি বিশ্বকাপে এসেছে সবশেষ ছয় ম্যাচে মাত্র এক জয়ের হতাশা নিয়ে। সৌদি আরবের বিপক্ষে সেই জয়টাও এসেছে ঘাম ঝরিয়ে। এর পরও আত্মবিশ্বাসী জার্মান তারকা সামি খেদিরা, ‘প্রথম ম্যাচে হারার পর ঘুরে দাঁড়ানো খুবই কঠিন। সুইডেনের খেলার বিশ্লেষণ করেছি, আমরা নিশ্চিত জিততে যাচ্ছি ম্যাচটি।’ এএফপি



মন্তব্য