kalerkantho


নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগ বাজারে

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



পলিথিন ব্যাগ পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক হুমকি—এ কথা আমরা কমবেশি সবাই জানি। তার পরও প্রকাশ্যে এর ব্যবহার চলছেই। হাত বাড়ালেই পাওয়া যাচ্ছে পলিথিন ব্যাগ এবং এটি সহজে বহনযোগ্যও বটে। অপচনশীল এই পলিথিন ব্যাগ মাটির উর্বরতা শক্তি নষ্ট করে ফেলে। এটি শহরের পয়োনিষ্কাশনব্যবস্থা বাধাগ্রস্ত করে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে। ফলে পানিদূষণসহ নানা রোগের বিস্তার ঘটছে। তথ্যমতে, ঢাকায় প্রতিদিন এক কোটি ৪০ লাখ পলিথিন ব্যাগ জমা হচ্ছে, যেগুলো একবার ব্যবহার করেই ফেলে দেওয়া হচ্ছে। অন্য এক তথ্যমতে, ঢাকার ৮০ শতাংশ জলাবদ্ধতার কারণ পলিথিন। ঢাকায় প্রায় ১০০ কোটি পলিথিন ব্যাগ পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে। বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন-১৯৯৫ (সংশোধিত ২০১০) অনুযায়ী নিষিদ্ধ পলিথিন উৎপাদন, আমদানি ও বাজারজাতকরণের ব্যাপারে জেল-জরিমানার বিধানও আছে। আইন থাকলেও ক্রেতা-বিক্রেতা কারোরই কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। ফলে পলিথিনের ব্যবহার কখনো থামেনি। পলিথিন ব্যাগের বিস্তার রোধে সবার আগে উৎপাদন কারখানাগুলো বন্ধ করে দিতে হবে। উৎপাদন বন্ধ করলে বিক্রেতা-ক্রেতা পর্যায়ে এগুলো পৌঁছবে না। সঙ্গে সঙ্গে অন্য পরিবেশবান্ধব ব্যাগ যেমন—কাগজের ঠোঙা, কাপড়ের ব্যাগ, পাটের ব্যাগ ব্যবহারে জনসাধারণকে সচেতন ও উৎসাহিত করতে হবে।

 

সাধন সরকার

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।


মন্তব্য