kalerkantho


সরকারের সদিচ্ছা নিয়ামক বিষয়

১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



লেখার শুরুতে জানাই এ সরকারকে ধন্যবাদ। সরকারপ্রধানের দৃঢ় মনোবল, সাহস, দেশপ্রেম ও কঠোর পরিশ্রমের কারণে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে আপন গতিতে। তিনি বড় বড় যুদ্ধাপরাধীর বিচারকাজ সফলতার সঙ্গে চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু বর্তমানে দেশে দুর্নীতি নেই—এমন কোনো ক্ষেত্র নেই। প্রশাসন থেকে শুরু করে রাজনীতিবিদ, মন্ত্রী, এমপি, আমলা, সবার বিরুদ্ধে এখন অভিযোগ। তবে সরকারের সদিচ্ছা থাকলে দুর্নীতি কমে যাবে বলে আমার বিশ্বাস। বিশেষ করে দলীয়ভাবে যদি চিন্তা করি সবার আগে দেশ, দেশ বাঁচলে থাকবে দল, আর দল থাকলে থাকবে সরকার। তা হলেই কমবে। প্রধানমন্ত্রীকে বলব দুর্নীতিবাজরা যে দলেরই হোক তাদের যেন শাস্তি দেওয়া হয়। অনেকে দুর্নীতি করছে আপনি জানেন, তাদের পার করে দিলে তখন তারা আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। সরষে ভূত রেখে ভূত তাড়ানো যায় না, তেমনি নিজেদের মধ্যে দুর্নীতিবাজ রেখে কখনো দেশের দুর্নীতি বন্ধ করা যাবে না। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকেও বলব, আপনারা সৎ থাকলে দেশে এত দুর্নীতি হওয়া সম্ভব নয়। আপনারা দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করার অঙ্গীকার করেছেন। এখন স্বজনপ্রীতি করে জনগণকে ঠকালে দেশের বড় ক্ষতি হবে। আপনারা বড় গলা করে বলেছেন, ‘দশ হাত পানির নিচ থেকে অপরাধীদের ধরা হবে, অথচ আপনারা এসবের সঙ্গে জড়িত। টাকার জন্য ছেড়ে দিচ্ছেন বড় বড় দুর্নীতিবাজকে। আপনাদের আন্তরিকতার অভাবে বড় বড় কর্মকর্তা থেকে শুরু করে সামান্য ঝাড়ুদারও করছে দুর্নীতি। সরকারের মানসিকতার পরিবর্তন না হলে কখনো দুর্নীতি দূর করা সম্ভব নয়। আর এ জন্য সবার আগে দরকার সরকারের মানসিক পরিবর্তন। অবশেষে সরকারকে বলব, আপনি কঠোর হোন, না হলে দুর্নীতির বটবৃক্ষ বিশাল মহীরুহে পরিণত হবে, তখন উপড়ানো যাবে না। এসব কথা বললেও কি এখন আপনাদের ঘুম ভাঙবে? আশা করি আমাদের মতামতগুলো ভেবে দেখবেন।

সাবিনা সিদ্দিকী শিবা

ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।


মন্তব্য