kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

নরেন্দ্রনাথ মিত্র

নরন্দ্রেনাথ মিত্রের জন্ম ১৯১৬ সালের ৩০ জানুয়ারি ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানার সদরদী গ্রামে। বাবা মহেন্দ্রনাথ ছিলেন মুন্সেফ কোর্টের নকলনবিশ, মা বিরাজবালা ছিলেন গৃহিণী।

শৈশবে সদরদী এম ই স্কুল শেষ করে ভাঙ্গা হাই স্কুলে ভর্তি হন। ১৯৩৩ সালে ভাঙ্গা হাই স্কুল থেকে প্রথম বিভাগে ম্যাট্রিকুলেশন পাস করেন। ক্লাস নাইনে পড়ার সময় কয়েকজন সহপাঠীর সঙ্গে মিলে প্রকাশ করেন হাতে লেখা দুটি পত্রিকা—‘আহ্বান’ ও ‘মুকুল’। ১৯৩৫ সালে ফরিদপুর রাজেন্দ্র কলেজ থেকে প্রথম বিভাগে আইএ পাস করেন। বিএ পাস করেন বঙ্গবাসী কলেজ থেকে। লেখালেখির সূচনা ছোটবেলায়। প্রথম মুদ্রিত কবিতা ‘মূক’, প্রথম মুদ্রিত গল্প ‘মৃত্যু ও জীবন’। দুটিই দেশ পত্রিকায়, ১৯৩৬ সালে। বাংলা ছোটগল্প পরিমণ্ডলে নরেন্দ্রনাথ মিত্র অনেকটাই অনালোচিত-অনালোকিত। পাঠককে নিমগ্নচিত্তে গল্পপাঠে মুগ্ধতার সঙ্গে ধরে রাখার এক অসামান্য শিল্পশক্তির আধার তাঁর গল্পমালা। কিংবদন্তিতুল্য নরেন্দ্রনাথ মিত্রের গল্প নিয়ে স্বতন্ত্র পর্যায়ের বিস্তরায়তন আলোচনা হতে পারে। ৫১টি গল্পগ্রন্থ ও ৩৮টি উপন্যাসের সার্থক কারিগর তিনি। সত্যজিৎ রায়, মৃণাল সেনসহ অনেকেই তাঁর রচনাকে চলচ্চিত্রে রূপ দিয়েছেন। তাঁর অনেক গল্পই হিন্দি, মারাঠি, রুশ, ইংরেজি, ইতালীয় ভাষায় অনূদিত হয়েছে। কর্মজীবনে অনেক ঘাত-অভিঘাত শেষে তিনি আনন্দবাজার পত্রিকায় যোগদান করেন এবং আমৃত্যু সেখানে কর্মরত ছিলেন। ১৯৬২ সালে তিনি আনন্দ পুরস্কার পান। ১৯৭৫ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

[উইকিপিডিয়া অবলম্বনে]


মন্তব্য