kalerkantho


বাসচাপায় তিশার মর্মান্তিক মৃত্যু

চালকের রিমান্ড হয়নি হেলপার লাপাত্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



চালকের রিমান্ড হয়নি হেলপার লাপাত্তা

মঙ্গলবার মায়ের হাত ধরে রাস্তা পার হতে গিয়ে বাসচাপায় প্রাণ হারায় মিরপুর গার্লস আইডিয়াল ল্যাবরেটরি ইনস্টিটিউটের ছাত্রী তিশা। গতকালও একই স্থানে শিশু শিক্ষার্থী নিয়ে রাস্তা পার হতে দেখা যায় এক অভিভাবককে। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর মিরপুরে বাসের চাপায় শিশু শিক্ষার্থী তাসনিম আলম তিশা (১১) নিহত হওয়ার ঘটনায় চালক আবদুর রহিম ওরফে বাবুকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার রাতে কাফরুল থানায় তিশার বাবা খোরশেদ আলম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলায় পুলিশ রহিমকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করে। ঢাকার মহানগর হাকিম আদালত আবেদন নামঞ্জুর করে আসামিকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন। এদিকে ঘটনার দুই দিন পেরিয়ে গেলেও বাসচালকের সহকারী মিশুকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, গ্রেপ্তারের পর রহিম তার ড্রাইভিং লাইসেন্স দেখাতে পারেনি। সে দাবি করছে, বাসে উত্তেজিত জনতার অগ্নিসংযোগে তার লাইসেন্স পুড়ে গেছে। বিষয়টি যাচাই করছে পুলিশ। ওদিকে পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই তিশার লাশ দাফনের জন্য হস্তান্তর করে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতেই লাশ নিয়ে রংপুরের পীরগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে যায় স্বজনরা। গতকাল সেখানে জানাজা শেষে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

কাফরুল থানার ওসি শিকদার শামীম হোসেন বলেন, ‘গতকাল (মঙ্গলবার) রাতে আটক গাড়িচালক আবদুর রহিমের বিরুদ্ধে কাফরুল থানায় দণ্ডবিধির ২৭৯ ও ৩০৪ (খ) ধারায় মামলা হয়েছে। ’

তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘মামলায় বাসচালক রহিমকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে তিন দিনের রিমান্ড আবেদন করি। আদালত রিমান্ড নামঞ্জুর করে আসামিকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। ’ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বাসটির হেলপারের নাম মিশু। সেও মামলার আসামি। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। রহিম দাবি করেছে যে তার ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে। গাড়িতে আগুন দেওয়ায় সেটি পুড়ে গেছে। আমরা যাচাই করে দেখব। বাসটির মালিকপক্ষের কাউকে এখনো শনাক্ত করা যায়নি। ’

তিশার বাবার সহকর্মী মোহন সরকার বলেন, ‘মঙ্গলবার রাতেই তিশার লাশ নিয়ে স্বজনরা রংপুরের পীরগঞ্জে যায়। গতকাল সেখানে গ্রামের বাড়িতে শিশুটির মরদেহ দাফন করা হয়। গতকালও মেয়ের জন্য বিলাপ করে বারবার জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন মা রিমা আক্তার। ’

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার দুপুরে স্কুল শেষে মায়ের সঙ্গে বাসায় ফিরছিল পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী তাসনিম আলম তিশা। মিরপুরে রোকেয়া সরণির কাজীপাড়া লাইফ এইড স্পেশালাইজড হাসপাতালের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় তেঁতুলিয়া পরিবহনের একটি বাসের চাপায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায় তিশা। পরবর্তী সময়ে বাসসহ চালককে আটক করে বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষুব্ধ জনতা।


মন্তব্য