kalerkantho


১৮ দিনেও খোঁজ মেলেনি কল্যাণ পার্টি মহাসচিবের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



১৮ দিনেও খোঁজ মেলেনি কল্যাণ পার্টি মহাসচিবের

কল্যাণ পার্টির মহাসচিব আমিনুর রহমান নিখোঁজ হওয়ার পর ১৮ দিনেও তাঁর খোঁজ মেলেনি। পুলিশ কেবল বলছে, চেষ্টা চলছে।

এ ছাড়া আমিনুর রহমানের মতোই রাজধানী থেকে সম্প্রতি নিখোঁজ হওয়া অন্য তিনজনেরও সন্ধান গতকাল পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। তাঁরা হলেন কানাডার ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইশরাক আহম্মেদ, ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ কুমার রায় এবং বিএনপি নেতা ও ব্যবসায়ী সৈয়দ সাদাত আহমেদ।

আমিনুর রহমান নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা নিয়ে গতকাল বুধবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে কল্যাণ পার্টি। সেখানে পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘আমরা এত দিন পরোক্ষভাবে নিখোঁজ, গুমের কথা শুনে আসছিলাম। এবার প্রত্যক্ষ করলাম। ’ তিনি লিখিত বক্তব্যে জানান, গত ২৭ আগস্ট রাত ১০টার পর নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয় থেকে বাড়ির উদ্দেশে বের হন আমিনুর রহমান। পরদিন ২৮ আগস্ট বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের মহাসচিবদের মিটিংয়ে তিনি অনুপস্থিত থাকেন। তখন অন্যরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তিনি নিখোঁজ। পরে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও না পাওয়ায় ৩০ আগস্ট সন্ধ্যার পর পরিবারের পক্ষ থেকে আমিনুরের ভাই এম এম মিজানুর রহমান পল্টন থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘আমাদের দৃঢ় ধারণা জন্মেছে, যেহেতু বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশে রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসায়ী অপহরণ হয়েছেন, তাই আমরা আমিনুর রহমানের অপহরণ হওয়ার বিষয়টিকে একই ধারাবাহিকতার গণ্য করি। সরকারের নিকট আমাদের জোর দাবি থাকবে আমিনুর রহমানকে জীবন্ত ও সুস্থ অবস্থায় তাঁর পরিবারের কাছে ফেরত দেওয়া হোক। ’

গতকালের সংবাদ সম্মেলনে আমিনুর রহমানের ভাই এম এম মিজানুর রহমানও উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, আমিনুর রহমানের কোনো শত্রু আছে বলে তাঁদের জানা নেই। তাঁর চিন্তায় মা খায়রুন্নেছা এখন শয্যাশায়ী। তাঁরা তাঁর ভাইকে ফেরত চান।

এম এম মিজানুর রহমান আরো বলেন, পল্টন থানা পুলিশের কাছে জানতে চাইলে তারা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে বলে জানায়। এর বেশি কিছু তারা জানাতে পারছে না।

এদিকে গত ২৬ আগস্ট সন্ধ্যায় কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া তরুণ ইশরাক আহম্মেদ রাজধানীর ধানমণ্ডি এলাকায় বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিতে বের হয়ে আর বাড়ি ফেরেননি। এ ঘটনায় ইশরাকের বাবা গার্মেন্ট ব্যবসায়ী জামালউদ্দীন আহম্মেদ ধানমণ্ডি থানায় একটি জিডি করেন। তাতে উল্লেখ করা হয়, ইশরাক বন্ধুদের নিয়ে স্টার কাবাব এলাকায় খেতে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হন। এরপর আর ফেরেননি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গতকাল পর্যন্ত ইশরাকের কোনো সন্ধান দিতে পারেনি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এ ছাড়া গত ২৭ আগস্ট বিকেল সোয়া ৪টার দিকে গুলশান-১ নম্বর এলাকা থেকে সাত-আটজন লোক নিজেদের গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য পরিচয় দিয়ে বাংলাদেশে বেলারুশের অনারারি কনসাল ও আরএমএম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অনিরুদ্ধ কুমার রায়কে তুলে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় অনিরুদ্ধ কুমারের ভাগ্নে কল্লোল গুলশান থানায় একটি জিডি করেন। গতকাল পর্যন্ত তাঁর খোঁজ মেলেনি বলে জানা গেছে।

এর আগে গত ২২ আগস্ট বিকেলে বিমানবন্দর সড়কের বনানী ফ্লাইওভারের নিচ থেকে বিএনপি নেতা ও এবিএন গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ সাদাত আহমেদ নিখোঁজ হন বলে তাঁর স্ত্রী ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। গতকাল পর্যন্ত তাঁরও সন্ধান মেলেনি।


মন্তব্য